1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

পাঠক ভাবনা

আলোচনায় যৌনকর্মীদের দুরবস্থা, ছাত্রলীগের তাণ্ডব

ডয়চে ভেলের ফেসবুক পাতায় বর্তমানে আলোচনায় রয়েছে বাংলাদেশের যৌনকর্মীদের দুরবস্থা নিয়ে তৈরি ছবিঘর, আর রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের প্রকাশ্যে অস্ত্র ব্যবহার সংক্রান্ত প্রতিবেদন৷

‘‘বাংলাদেশের যৌনকর্মীদের কথা'' শিরোনামের ছবিঘরটি প্রকাশ করা হয় গত শুক্রবার৷ এরপর ডয়চে ভেলের ফেসবুকে পাতায় সেটি দেখেছেন লক্ষাধিক মানুষ৷ যৌনকর্মীদের দুর্দশা নিয়ে তৈরি ছবিঘরটির প্রতি পাঠকের আগ্রহ বিবেচনায় এনে সপ্তাহান্তে সেটি আবারও পোস্ট করা হয়৷

এই ছবিঘর নিয়ে ফেসবুকে মন্তব্য করেছেন কয়েকজন পাঠক৷ ইমরুল হোসেন লিখেছেন, ‘‘ওরা ভালো নেই বস৷ আপনারা কিছু করেন৷'' মুবারক হোসেন সুমন লিখেছেন, ‘‘হায় রে মানুষ! কেউ পেটের দায়ে, আর কেউ মনের....এরপরও যত দোষ!''

রহমান হাবিব নামক অপর পাঠক বেশ লম্বা মন্তব্য করেছেন৷ তিনি লিখেছেন, ‘‘পোস্টটা দেখে মনে হচ্ছে পোস্টকারীর ভাবটা এমন যে, বাংলাদেশের যৌনকর্মীরা ভালো নেই৷ সাহায্য করা দরকার, স্বীকৃতি দেয়া দরকার যাতে তারা ভালো থাকে এবং দেশের বেকার যুবক-যুবতীরা এই পেশায় এগিয়ে আসে৷ কে কে এই পেশায় আসতে চান?''

তিনি লিখেছেন, ‘‘আর কিছু জ্ঞানী লোক তাদের নিষিদ্ধ করে দিতে চান কারণ তাঁরা জানেন এটা খারাপ কাজ৷ এই পর্যন্তই তাঁদের জ্ঞান সীমিত৷ তারা কি না খেয়ে মারা যাবে না আরো খারাপ কাজে লিপ্ত হবে এ দিকে কোন খেয়াল নেই৷ যদি ভালো চান তাদের অন্য কাজের ব্যবস্থা করে পুনর্বাসনে এগিয়ে আসুন৷''

আলোচনায় ছাত্রলীগ

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগ নেতাদের প্রকাশ্যে পিস্তল প্রদর্শন নিয়ে ডয়চে ভেলে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করে সোমবার৷ ‘‘বেসামাল ছাত্রলীগ নেতাদের রক্ষার চেষ্টা'' শিরোনামের এই প্রতিবেদন সম্পর্কে ফেসবুকে সাজু লি লিখেছেন, ‘‘আওয়ামী লীগের কথাবার্তা বেসামাল৷ বর্তমান জনগণ ওদের কথা বিশ্বাস করে না৷ জনগণ যা দেখার তা দেখেছে পত্রিকায়, টিভি ফুটেজে এবং যা বোঝার তা বুঝে নিয়েছে৷''

ডয়চে ভেলের অপর পাঠক সাহাদাত হোসেন মানিক লিখেছেন, ‘‘মানুষের চোখ আছে, তারা সব দেখে৷ কিন্তু অনেক সময় সত্য বলতে পারে না জীবনের ভয়ে৷''

সংকলন: আরাফাতুল ইসলাম

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ

নির্বাচিত প্রতিবেদন