1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

আলোচনায় বিজেপি নেতার জমির দাবি

ভারতীয় জনতা পার্টি বা বিজেপির নেতা সুব্রামনিয়াম স্বামী বাংলাদেশের এক তৃতীয়াংশ ভূখণ্ড দাবি করে যে মন্তব্য করেছেন, তা নিয়ে ব্লগ, ফেসবুকসহ সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমগুলোতে স্বাভাবিকভাবেই চলছে তুমুল আলোচনা৷

আসামের শিলচর থেকে প্রকাশিত বাংলা দৈনিক ‘সাময়িক প্রসঙ্গ' গত শনিবার সুব্রামনিয়াম স্বামীর ওই বক্তব্য প্রকাশ করে৷ সেখানে এই বিজেপি নেতা দাবি করেন, দেশ ভাগের পর বাংলাদেশ থেকে এক তৃতীয়াংশ মুসলমান ভারতে অনুপ্রবেশ করেছে৷ তাই বাংলাদেশকে তাদের ফিরিয়ে নিতে হবে৷ তা না হলে খুলনা থেকে সিলেট পর্যন্ত সমান্তরাল রেখা টেনে বাংলাদেশের এক তৃতীয়াংশ ভূখণ্ড ভারতের হাতে ছেড়ে দিতে হবে৷

এর প্রতিক্রিয়ায় সামহয়্যার ইন ব্লগে শামীম সুজায়েত লিখেছেন, ‘‘সিলেটকে ভারতের করে নেয়ার এক ফমুর্লা বের করেছে মোদীর বিজেপি৷ সেই ফর্মুলা অনুযায়ী দেশের দক্ষিণ-পশিমাঞ্চল চলে যাবে পশিমবঙ্গের ভেতর৷ অপরদিকে সিলেট ঢুকে যাবে মেঘালয়ের সাথে৷''

সুব্রামনিয়াম স্বামীর বক্তব্যের সমালোচনায় তিনি পাল্টা দাবি তুলেছেন, আসাম-ত্রিপুরা, মেঘালয় ও পশ্চিমবঙ্গের বনগাঁ থেকে মুর্শিদাবাদ পর্যন্ত এই বেল্টের পরপর অঞ্চলগুলো বাংলাদেশর জন্য ছেড়ে দিতে হবে৷ তাঁর কথায়, ‘‘যেভাবেই দেখা হোক না কেন, যুক্তিতর্কে, জনমত জরিপ, কিংবা বসবাসরত মানুষের মতামতের প্রেক্ষিতে ভারতের ওই রাজ্যগুলোর মালিক বাংলাদেশ৷''

Indien Teeplantage Tee Pflücker Pflückerinnen Assam

‘‘আসাম-ত্রিপুরা, মেঘালয় ও পশ্চিমবঙ্গের বনগাঁ থেকে মুর্শিদাবাদ পর্যন্ত অঞ্চলগুলো বাংলাদেশর জন্য ছেড়ে দিতে হবে’’

অবশ্য সুব্রামনিয়ামের ওই বক্তব্যকে এতটা গুরুত্ব দেয়ার কিছু দেখছেন না জুনায়েদ তাহসান৷ সামহয়্যার ইন ব্লগে তিনি লিখেছেন, ‘‘গত কিছুদিন ধরেই দেখছি ভারতের কোনো এক পাতি নেতা নাকি বাংলাদেশের কিছু অংশের ভাগ চাইছে৷ আর সেটা নিয়েই দেখি ব্লগ কিংবা ফেসবুকে বিশাল ঝর উঠেছে৷ খুবই হাস্যকর৷....আপনি যত ‘রিঅ্যাক্ট' করবেন খবরের গুরত্ব তত বেড়ে যাবে৷''

আমার ব্লগে প্রায় একই ধরনের কথা লিখেছেন শিমুল জিতু৷ তাঁর বক্তব্য, ‘‘কথাটা যদি আজ ভারতীয় সরকারের কোনো নীতিনির্ধারণী পর্যায়ের কেউ বলতো কিংবা গ্রহণযোগ্য কোনো মুখ থেকে আসতো, তাহলে আমরা আমাদের সার্বভৌমত্ব নিয়ে প্রশ্ন তোলায় তার বিচার দাবি করতাম৷ কিন্তু....এর কথা কানে নিলে বোকামি, আর তা নিয়ে হৈ চৈ করা আরো বড় বোকামি৷''

তাঁর এই লেখার প্রতিক্রিয়ায় ইমরান ওয়াহিদ জোয়ার্দ্দার লিখেছেন, ‘‘অবস্থা দেখে মনে হচ্ছে, নরেন্দ্র মোদী নিজেই বুঝি ভোটে জিততে এই ইস্যু টানছে৷ লোকে ভুলেই গেছে, মোদী বিরাট সেয়ানা৷ কংগ্রেসের চাইতেও বেটার পররাষ্ট্রনীতি দেখবেন ওর কাছ থেকে৷''

সংকলন: জাহিদুল কবির

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ

সংশ্লিষ্ট বিষয়