1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

আলির অভাব সবচেয়ে বেশি অনুভব করবেন যুক্তরাষ্ট্রের মুসলিমরা

মোহাম্মদ আলি চলে যাবার পর সারা দুনিয়া যেন নতুন করে বুঝতে পেরেছে যে, তিনি ছিলেন ‘দ্য গ্রেটেস্ট', সর্বশ্রেষ্ঠ৷ তবে তাঁর অভাব যাঁরা সবচেয়ে বেশি করে অনুভব করছেন ও করবেন, তাঁরা হলেন যুক্তরাষ্ট্রের মুসলিমরা৷

বিশ্বের সর্বকালের সেরা বক্সার? নিঃসন্দেহে৷ কিনশাসার ‘রাম্বল ইন দ্য জাঙ্গল'-এ আলির প্রতিদ্বন্দ্বী জর্জ ফোরম্যান বলেছেন, তাঁর নিজের একটা অংশ যেন চলে গেছে৷ পরবর্তী যুগের সবচেয়ে ভীতিকর হেভিওয়েট বক্সার মাইক টাইসন বলেছেন, ঈশ্বর তাঁর চ্যাম্পিয়নকে নিজের কাছে নিয়ে গেছেন৷

বক্সিং সম্পর্কে যাঁদের সামান্যতম ধারণা আছে, তাঁরাই বলবেন, আলির মতো ফুটওয়ার্ক ও যুগপৎ পাঞ্চ খুব কম বক্সারেরই থাকে৷ সেই সঙ্গে আলির আরো দু'টি গুণ ছিল: কথা বলার ও বড়াই করার ক্ষমতা ও এক ধরনের - আমরা বাঙালিরা বলব - কবির লড়াই সুলভ কবিত্ব৷ তাই তাঁর বক্সিং স্টাইলের শ্রেষ্ঠ বর্ণনা পাওয়া যাবে তাঁরই ভাষায়: ‘ফ্লোট লাইক এ বাটারফ্লাই, স্টিং লাইক এ বি', প্রজাপতির মতো ওড়ো, ভীমরুলের মতো কামড়াও৷

সারা দুনিয়া থেকে আসছে যতোটা ভালোবাসা, ঠিক ততোটাই শ্রদ্ধা ও সম্মানের অর্ঘ৷ তবে বাস্তবিকভাবে শোকগ্রস্ত - এবং উদ্বিগ্ন - মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মুসলিমরা, কেননা মোহাম্মদ আলি ছিলেন তাদের গ্রেটেস্ট হিরো৷ অ্যামেরিকায় যেখানে ইসলাম সম্পর্কে ধারণা ও সহানুভূতি, উভয়ই সীমিত, সেখানে আলি ছিলেন ইসলামের গুডউইল অ্যাম্বাসেডর৷ কাজেই আলির মৃত্যুর পরদিন লুইভিলের ইসলামিক সেন্টারে এক বক্তা প্রশ্ন তোলেন, কে এখন ইসলামবিদ্বেষের দানবদের বিরুদ্ধে লড়াই করবে? মুসলিমদের অন্যায় অপবাদ ও সন্দেহের হাত থেকে বাঁচাবে? শুধু মার্কিনি নয়, বিশ্বের বহু মানুষের কাছে আলি ছিলেন ‘বাস্তবিক ইসলামের' প্রতিভূ ও প্রতিনিধি৷

মার্কিন মুলুকে সামনে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন, যে নির্বাচনে সম্ভাব্য রিপাবলিকান প্রার্থী হবেন ডোনাল্ড ট্রাম্প, যিনি গত ডিসেম্বরে প্রস্তাব দেন যে, যাবতীয় মুসলিমদের যুক্তরাষ্ট্রে আগমন সাময়িকভাবে বন্ধ রাখা হোক; যিনি গত রবিবারেও ইঙ্গিত করেছেন যে, তাঁর প্রতি এক বিচারকের মনোভাব বিদ্বেষপূর্ণ হতে পারে৷ যার উত্তরে সম্ভাব্য ডেমোক্র্যাট প্রার্থী হিলারি ক্লিন্টন বলেছেন...

‘‘এমন একটি দিনে, যখন আমরা মোহাম্মদ আলির জন্য শোক করছি, সেদিন এ'কথা মনে রাখা যেতে পারে যে, আমরা এমন একটি দেশে বাস করি, যেখানে মানুষ প্রতিবন্ধক দূর করতে পারে, নিজেদের ঈশ্বরের আরাধনা করতে পারে, নিজের নাম বেছে নিতে পারে; যেখানে তারা নেতৃত্ব দিতে পারে; স্বকীয় পরিশ্রম ও প্রতিভা যতদূর নিয়ে যায়, ততদূর অবধি নিজের স্বপ্নকে অনুসরণ করতে পারে৷'' হিলারির এই মন্তব্য মোহাম্মদ আলি ও অ্যামেরিকা, উভয়কে স্মরণে রেখে৷ ঠিক সেভাবেই আগামী শুক্রবার মোহাম্মদ আলির সমাধি অনুষ্ঠানে ভাষণ দেবেন হিলারির স্বামী ও আলির বন্ধু, সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিন্টন৷

এসি/এসিবি (রয়টার্স, এপি, এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়