1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিজ্ঞান পরিবেশ

আলসাইমারে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি কমায় ভিটামিন বি

প্রতিদিন ভিটামিন বি শরীরে নিলে আলসাইমার রোগে আক্রান্ত হবার আশঙ্কা অনেকটা কমে৷ এমনকি এই রোগ প্রতিরোধও করতে পারে ভিটামিন বি৷ ৯ সেপ্টেম্বর এক সমীক্ষায় এই কথা জানানো হয়েছে৷

Vitamin, B, আলসাইমার, ভিটামিন, বি

নতুন এই সমীক্ষায় বলা হয়েছে, বয়স্ক মানুষের আলসাইমার রোগে আক্রান্ত হবার হুমকি হিসেবে যেটাকে দেখা হয়, সেই মগজ সঙ্কোচনের মাত্রা অর্ধেকে নামিয়ে আনে ভিটামিন বি-এর সম্পূরক খাবার৷ বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে মগজ সঙ্কোচন এক প্রাকৃতিক নিয়ম৷ মাঝে মাঝে বৈকল্য বোধ বয়স্ক মানুষের মধ্যে খুব দ্রুতই চলে আসে৷ এই ‘কগনিটিভ ইমপায়ারমেন্ট'কে সংক্ষেপে বলা হয় ‘এমসিআই'৷ আর ‘এমসিআই' হচ্ছে আলসাইমারের পূর্বলক্ষণ৷

সমীক্ষাটি পরিচালনা করেছেন, ব্রিটিশ গবেষকের নেতৃত্বাধিন একদল বিজ্ঞানী৷ তাঁরা বলছেন, এই ভিটামিন চিকিৎসা আলসাইমারের সম্ভাবনা কমাতে পারে৷ তবে এই তত্ত্ব পরীক্ষার জন্যে বিজ্ঞানীরা আরো গবেষণার ওপর জোর দিয়েছেন৷

এই গবেষণাটি প্রকাশ করা হয়েছে, অনলাইন জার্নাল পাবলিক লাইব্রেরি অফ সায়েন্স ওয়ান-এ৷ ‘এমসিআই' বা বৈকল্যবোধ ধরা পড়েছে এইরকম ১৬৮ জন সেচ্ছাসেবীর মধ্যে এই সমীক্ষাটি চালানো হয়েছে৷ আর তাঁদের সবার বয়সই ৭০-এর ওপরে৷ দুই বছরেরও বেশি সময় ধরে এই সেচ্ছাসেবীদের অর্ধেককে উচ্চ মাত্রার ভিটামিন বি ট্যাবলেট, বি১২ অথবা বি৬ দেয়া হয়েছে৷ বাকিদেরকে কার্যকর কোন উপাদান ছাড়াই ট্যাবলেট দেয়া হয়৷ আর এই পরীক্ষাটি চালিয়েছেন অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটির গবেষকরা৷ তাদেরকে সহযোগিতা করেছেন নরওয়ের সহকর্মীরা৷ সমীক্ষা শেষ হবার পরে পাওয়া গেছে এই নাটকীয় ফল৷

মোটের ওপর ভিটামিন বি ব্রেনের ক্ষয়িষ্ণুতার মাত্রা কমায় শতকরা ৩০ ভাগ৷ তবে কিছু ক্ষেত্রে এই মাত্রা হ্রাস করে প্রায় শতকরা ৫৩ ভাগ পর্যন্ত৷ অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটির ফার্মাকোলজি বিভাগের যাঁরা এই সমীক্ষায় নেতৃত্ব দিয়েছেন, তাঁদেরই একজন ডেভিড স্মিথ৷ তিনি বলেন, ‘‘সমীক্ষায় আমরা খুবই নাটকীয় ফলাফল পেয়েছি৷ আমরা যা আশা করেছিলাম এই ফলাফল তার চেয়ে অনেক বেশি৷'' তিনি বলেন, ‘‘অনেকেই আছেন, যারা হাল্কা স্মরণশক্তি সমস্যায় ভুগছেন, এই সহজ ও নিরাপদ চিকিৎসা তাদের মধ্যে দ্রুত আলসাইমারের বিস্তার প্রতিরোধে সহায়তা করবে বলে আমরা আশা করি৷''

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার হিসেব অনুযায়ী, বিশ্বের প্রায় ৩ কোটি ৭০ লাখ মানুষ আলসাইমারের পূর্ব লক্ষণে ভুগছেন৷

প্রতিবেদন: ফাহমিদা সুলতানা

সম্পাদনা: সঞ্জীব বর্মন

নির্বাচিত প্রতিবেদন