আরভকে হেনস্থা! রক্ষীকে সপাটে চড় মারলেন অক্ষয় | সমাজ সংস্কৃতি | DW | 20.01.2011
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

আরভকে হেনস্থা! রক্ষীকে সপাটে চড় মারলেন অক্ষয়

দেখা যাচ্ছে যে তারকাদের ছেলেপুলেরাও তেমন সুরক্ষিত নয়৷ নিজের ছেলেকে যৌন হেনস্থার শিকার হতে দেখে মাথা ঠিক রাখতে পারেন নি বলিউডি হিরো অক্ষয়কুমার৷ নিরাপত্তারক্ষীর গালে টেনে চড় মেরেছেন তিনি৷

default

অক্ষয়ের থাপ্পড় বেশ জোরদার!

গন্ডগোলটা যে কোথায় তা ভালো বোঝা যাচ্ছে না৷ কিন্তু, অক্ষয়-টুইঙ্কলের পুত্র আরভকে তার পশ্চাদ্দেশে চিমটি কেটেছিল নিরাপত্তারক্ষী৷ যে কারণে অক্ষয়কুমার সেই নিরাপত্তারক্ষীর গালে সপাটে থাবড়া কষিয়ে কাজ থেকে জবাব দিয়ে দিয়েছেন৷ ঘটনা হল, এ ঘটনা আবার যেখানে ঘটেছে, সেটা অক্ষয়ের নিজের বাড়ি নয়৷ সেটা হল অক্ষয়ের এক বন্ধুর বাড়ি৷ আর সেখানে বেড়াতে গিয়েই এই কান্ড৷

বেড়াতে যাওয়া হয়েছিল অক্ষয়কুমারের এক বন্ধুর জুহুর বাড়িতে৷ সঙ্গে স্ত্রী টুইঙ্কল কাপুর খান্না, মানে ডিমপল কাপাডিয়া রাজেশ খান্নার কন্যা, একদা নায়িকা টুইঙ্কল আর ছেলে আরভকে নিয়ে আক্কি বা অক্ষয়কুমার গিয়েছিলেন৷ সেখানে গিয়ে প্রিয় পুত্র আরভ নাকি তার সমবয়সী বন্ধুদের সঙ্গে বাইরে খেলছিল৷ খেলার সময়ই এই কান্ড৷ তারপরেই আরভের কান্না শুনে বাবা অক্ষয়ের বীরবিক্রম এবং নিরাপত্তারক্ষীর চাকরিটি নট৷

নিরাপত্তারক্ষীদের দপ্তর থেকে আবার বলা হয়েছে, আসলে আরভ আর তার বন্ধু রক্ষীদের বারণ না শুনে মিটারের ঘরের মধ্যে ঢুকতে চেষ্টা করছিল দেখেই ওই রক্ষী তাদের একটু শাস্তি দিতে যায়৷ তার থেকেই তো এই সব গোলমাল৷

কিন্তু তাই বলে শাস্তি দেওয়ার নাম করে যৌন হেনস্থা! অক্ষয়গিন্নী টুইঙ্কল নাকি তেড়ে জবাব দিয়েছেন, আরভ মোটেই তেমন দুষ্টু ছেলে নয়৷ ও মোটেই মিটারের ঘরে ঢুকতে যায়নি৷ কিন্তু কে শুনছে কার কথা? ঘটনা হল, আরভকে হয়তো খোদ অক্ষয়কুমারের পুত্র বলে আদৌ চিনতে পারে নি ওই রক্ষী৷ সেটা পারলে কী আর সে ওই ভুল করে? যাহোক, যা হওয়ার তা হয়েছে৷ আপাতত এই পরিস্থিতিতে জল ঢালতেই চাইছে অক্ষয়ের পরিবার৷

প্রতিবেদন: সুপ্রিয় বন্দোপাধ্যায়

সম্পাদনা: অরুণ শঙ্কর চৌধুরী

সংশ্লিষ্ট বিষয়