1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

‘আমার মা-কে খুব ভালোবাসি'

পৃথিবীর সবচেয়ে কঠিন চাকরি কোনটি? এমন চাকরি যেখানে বছরের ৩৬৫ দিনই কাজ থাকে? উৎসবের দিনে আরো বেশি কাজ করতে হয়৷ বলতে পারেন, এমন চাকরি কোনটি? আপনার খুব কাছের মানুষটিই কিন্তু সেই ‘চাকরি' করেন৷

Mother

প্রতীকী ছবি

কয়েকজন তরুণ-তরুণীকে বলা হয়েছিল, ‘ডিরেক্টর অফ অপারেশন্স' পদে লোক নেয়া হবে৷ শুনেই সবাই চাকরিটি পাওয়ার আগ্রহ দেখালেন৷ কিন্তু চাকরির শর্তাবলী সম্পর্কে যত ধারণা দেয়া হলো, ততই তাঁদের মনে হতে লাগল, এত কষ্টের কাজ পৃথিবীতে থাকতেই পারে না৷

সপ্তাহে ১৩৫ ঘন্টা কাজ! কোনো কোনো দিন বিশেষ প্রয়োজনে সারারাত জেগেও কাজ করতে হয়! কাজের মাঝে অনেক সময় কোনো বিরতি থাকে না৷ উৎসব তাঁদের জীবনেও আসে, তবে উৎসবে কাজ আরো বেড়ে যায়৷ সবাইকে খুশি রাখতে আরো বেশি পরিশ্রম করতে হয় তাঁদের৷ এসব শুনে এক তরুণী অবাক হয়ে জানতে চাইলেন, ‘‘কাজটা কি আইনসম্মত?'' জানানো হলো, ‘‘নিশ্চয়ই আইনসম্মত কাজ৷ পৃথিবীতে কোটি কোটি মানুষ এই কাজ করছে৷''

স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন আসে, ‘‘এত কঠিন যে কাজ তাতে বেতন কত?''

কোনো বেতন নেই৷

এরপর আর কেউ কাজটাকে স্বাভাবিক ও মানবিক বলে মানতে পারলেন না৷ একজন তো বলেই উঠলেন, ‘‘এটা তো খুব অমানবিক কাজ! এই কাজ করা কারো পক্ষে সম্ভব নয়৷''

তখন প্রশ্নকর্তা বাধ্য হয়েই বললেন, ‘‘কিন্তু এমন অমানবিক কাজই তো সবার মা সারাটা জীবন করে যাচ্ছেন৷ বিশ্বের সবচেয়ে কঠিন কাজটি আমাদের মা-ই করছেন৷ হ্যাঁ, তিনিই সেই ‘ডিরেক্টর অফ অপারেশন্স৷''

প্রথমে সবাই হেসে উঠলেন৷ বোকার হাসি৷ প্রত্যেকেরই তো আছে৷ কিন্তু মা যে এমন অমানবিকভাবে প্রত্যেকটি দিন, প্রতিটি সপ্তাহ-মাস-বছর, সারাটা জীবন সংসারের সবার জন্য এভাবে খেটে মরেন, তা তো কেউ ভেবে দেখেননি! নিজের মায়ের কথা মনে পড়ল সবার৷ এক তরুণী কেঁদেই ফেললেন৷ তাঁর মুখ থেকে অস্ফুটে বেরিয়ে এলো, ‘‘আমার মা সত্যিই ‘অ'সাম'৷ মা-কে খুব ভালোবাসি৷''

গত ১৪ই এপ্রিল ইউটিউবে আপলোড করা হয়েছিল ওপরের এই ভিডিও৷ দু মাসেরও কম সময়ে ভিডিওটি আড়াই কোটির বেশি বার দেখা হয়েছে৷

এসিবি/এসি

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়