1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

‘আমার পুরুষটির চাই ব্যালান্স’, বিনয়কে বিয়ে করে রিয়া

হয়ে গেল বিয়েটা৷ সুচিত্রা সেনের নাতনি, মুনমুন সেনের কন্যা রিয়া সেনের৷ বিয়ে হল মুম্বইতেই৷ কিন্তু বিয়ে শেষ করেই কনে জানালেন, কেমন পুরুষ তাঁর পছন্দের৷ যে পুরুষের আছে ব্যালান্স৷

default

রিয়ার মতই কী রাইমারও মতামত?

‘আমার পছন্দের পুরুষের চাই জোরদার ব্যালান্স৷ জীবনের সব ক্ষেত্রেই সেই পুরুষ শুধু ব্যালান্সের খেলা দেখাতে পারবে৷ কোথাও ঘাবড়াবে না৷' বাঙালির রোম্যান্টিকতার শেষ কথা বলে যে নায়িকাকে আমরা চিনি, সেই সুচিত্রা সেনের নাতনির যে এমন রোম্যান্টিকতা বিরোধী মনোভাব, তা আগে কেউ জানত না৷ রিয়া সেন সেদিন দীপা মেহতার ছবি ‘তেরে মেরে ফেরে'-র শ্যুটিং-এ ছিলেন৷ সেখানেই প্রথমে বিয়ে করে তারপরে এতসব কথা বলে দিলেন গলগল করে৷

বিয়ের পাত্র অবশ্যি সেই ভেজা ফ্রাইয়ের কমেডিয়ান বিনয় পাঠক৷ তাঁর মত অমন গোবেচারা বেঁটেখাটো মানুষের এমন তন্বী তরুণী বৌ, ব্যাপারটা তেমন মানাচ্ছে না৷ রিয়াকে সেকথাও জিজ্ঞাসা করা হল৷ তো, রিয়া বললেন, আমার আসল পাত্র তো বিনয় নয়! ও হল আমার ছবির বর৷

ছবির বাইরে কেমন বর চান? তার উত্তরে, এই হল জবাব৷ সঙ্গে অবশ্যি, আরও অনেক কথা৷ যেমন জীবনে প্রেম এ পর্যন্ত অনেকবারই এসেছে, গেছে, কিন্তু বিয়েটিয়ে এখন বেশ দূরেই৷ কারণটাও সহজ, ওই ব্যালান্স৷ ঠিকঠাক ব্যালান্স যার নেই, তার সঙ্গে তো আর যাই হোক, বিয়ে করাটা অসম্ভব ব্যাপার৷ তাই সুচিত্রা সেনের নাতনি নায়িকা রিয়ার এখন ব্যালান্সের জন্যই যাবতীয় তপস্যা৷

দেখা যাক, কতদিনে রিয়ার জীবনে তাঁর পছন্দের ব্যালান্সওয়ালা মনের মানুষ আসে৷

প্রতিবেদন : সুপ্রিয় বন্দ্যোপাধ্যায়

সম্পাদনা : হোসাইন আব্দুল হাই

সংশ্লিষ্ট বিষয়