1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

‘আমাদের গণতন্ত্র আছে, কিন্তু নিরাপত্তা নেই’

কথাটা মিয়ানমারের এক মুসলমান নাগরিক মাউং মাউং মিন্ট এর৷ তিনি ইয়াঙ্গনের একটি বাঙালি মসজিদ দেখভাল করেন৷ দেশে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে তিনি দু’দুটি সামরিক বাহিনী বিরোধী আন্দোলনে অংশ নিয়ে হারিয়েছেন এক নিকট আত্মীয়কে৷

সেই মিন্ট এখন মনে দুঃখ আর ক্ষোভ নিয়ে বলছেন, ‘‘এখন আমাদের গণতন্ত্র আছে কিন্তু আমরা মুসলমানরা শান্তিতে নেই৷ এর চেয়ে সামরিক শাসনামলেই আমরা ভাল ছিলাম৷''

২০১০ সালে নির্বাচনের মাধ্যমে ৪৮ বছরের সামরিক শাসন পেরিয়ে গণতন্ত্রে ফেরে মিয়ানমার৷ যদিও সেই নির্বাচনে সামরিক বাহিনীর পক্ষের দলই জেতে, তবুও প্রেসিডেন্ট টেইন সেইন সংস্কারপন্থি হওয়ায় তিনি মিয়ানমারে অনেক সংস্কার আনেন৷ এতে খুশি হয়ে আন্তর্জাতিক বিশ্ব মিয়ানমারের ওপর থেকে আর্থিক নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়৷

সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা

সেনা শাসনের ৪৮ বছরে মিয়ানমার কোনো বৌদ্ধ-মুসলিম সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা দেখেনি৷ শেষটা দেখেছিল তার আগের গণতান্ত্রিক সরকারের আমলে৷ এবার আবার যখন গণতন্ত্র এলো শুরু হয়ে গেল দাঙ্গা৷ গতবছর এমন এক দাঙ্গায় রাখাইন রাজ্যে ১৬৭ জন নিহত হন, যার বেশিরভাগই ছিলেন মুসলিম৷ এরপর আবার এ বছরের শুরুতে মধ্য ও উত্তর মিয়ানমারে দাঙ্গায় নিহত হন ৫০ জন মুসলিম৷

‘৯৬৯ আন্দোলন'

শুরু এ বছরের ফেব্রুয়ারিতে৷ বৌদ্ধ ভিক্ষু ভিরাথু এর নেতৃত্বে আছেন৷ ভিরাথু নিজেকে বৌদ্ধ ধর্মের ওসামা বিন লাদেন বলে আখ্যায়িত করেছেন৷ ‘টাইম' ম্যাগাজিন তাঁকে নিয়ে কাভার প্রতিবেদন প্রকাশ করে তাঁকে ‘সন্ত্রাসী' বলে আখ্যায়িত করেছে৷ আন্দোলনের মূল উদ্দেশ্য মুসলমানদের মালিকানায় থাকা ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে কোনো ধরনের লেনদেন না করতে ও তাদের উৎপাদিত পণ্য বর্জন করতে জনগণকে উদ্বুদ্ধ করা৷

মিয়ানমারের ‘মন' রাজ্য এই আন্দোলনের শুরু যেখানে সবচেয়ে বেশি মুসলমান বাস করেন৷ এরপর সেটা সারা দেশেই ছড়িয়ে পড়ে৷ গতমাসে মন রাজ্যের রাজধানী থেকে ইয়াঙ্গনের যাওয়ার সময় পথে এক মুসলমানের মালিকানাধীন বাসে হামলা হয়৷ হামলাকারীরা বাসের চালককে হত্যা করে আর যাত্রীদের কাছ থেকে জিনিসপত্র কেড়ে নেয়৷ সেসময় হামলাকারীরা যাত্রীদের বলেন মুসলমানদের সঙ্গে চলাফেরা করলে এমনই হবে৷

সরকার নিশ্চুপ

এতোকিছুর পরও সরকার ভিরাথু ও তাঁর আন্দোলনের সমালোচনা করছে না৷ তারা বলছে মুসলমান বিরোধী সহিংসতার সঙ্গে ভিরাথুর আন্দোলনের যোগসূত্র থাকার কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি৷ অথচ ভিরাথুকে সন্ত্রাসী বলায় টাইম ম্যাগাজিনের ঐ সংখ্যার উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করে মিয়ানমার সরকার৷

জেডএইচ / এসবি (ডিপিএ)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়