1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

আবার ইরানের সঙ্গে আলোচনা

জেনেভায় বুধ থেকে শুক্রবার ইরানের বিতর্কিত পরমাণু কর্মসূচির বিষয়ে তৃতীয় দফার আলোচনা শুরু হতে চলেছে৷ প্রাথমিক বোঝাপড়ার আশা বেড়ে গেলেও প্রবল চাপের মুখে আলোচনা ব্যর্থ হওয়ার আশঙ্কাও রয়েছে৷

তেহরানে ক্ষমতাকেন্দ্রে পালাবদলের পর জেনেভায় ইরানের সঙ্গে প্রথম দুই দফার আলোচনায় তেমন কোনো ফল পাওয়া না গেলেও সবার নজর চলতি সপ্তাহে তৃতীয় দফার আলোচনার দিকে৷ প্রবল রাজনৈতিক চাপের মুখে আলোচনা প্রক্রিয়ার উপর চাপ বাড়ছে৷ বিশেষ করে ইসরায়েল ইরানের সঙ্গে আপোশের তীব্র বিরোধিতা করছে৷ সৌদি আরবও ইরানের অভিসন্ধি সম্পর্কে সন্দিহান৷ পশ্চিমা বিশ্বের এই দুই ঘনিষ্ঠ সহযোগীকে না চটিয়েই ‘পি-ফাইভ প্লাস ওয়ান', অর্থাৎ জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের ৫ স্থায়ী সদস্য ও জার্মানিকে আলোচনা চালাতে হচ্ছে৷

ইরান তার বিতর্কিত পরমাণু কর্মসূচি রাতারাতি বন্ধ করে দেবে, এমন অবাস্তব প্রত্যাশা কেউ করছে না৷ তাই প্রাথমিক চুক্তির আওতায় পরমাণু কর্মসূচির কিছু অংশ বন্ধ করার পরিকল্পনা করা হচ্ছে৷ ইরান এমন সদিচ্ছা দেখালে সে দেশের বিরুদ্ধে কিছু নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়া হবে৷ পারস্পরিক আস্থা তৈরি হলে তারপর পরবর্তী পর্যায়ে আরও এক ধাপ এগোনো যেতে পারে৷

U.S. President Barack Obama (L) and South Africa's President Jacob Zuma hold a joint news conference at the Union Building in Pretoria June 29, 2013. REUTERS/Gary Cameron (SOUTH AFRICA - Tags: POLITICS)

মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা

যে সব বিষয় নিয়ে ইরানের সঙ্গে মতবিরোধ এখনো কাটছে না, তার মধ্যে রয়েছে আরাক পরমাণু কেন্দ্র নির্মাণ বন্ধ করার প্রস্তাব৷ সেখানে যে প্লুটোনিয়াম উৎপাদন করার পরিকল্পনা রয়েছে, তা পরমাণু অস্ত্র তৈরির কাজে লাগানো সম্ভব৷ তাছাড়া ইরান এতকাল ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণ করে যে ভাণ্ডার তৈরি করেছে, তা দিয়েও পরমাণু অস্ত্র তৈরি করা সম্ভব৷ সেই ইউরেনিয়াম দেশের বাইরে পাঠানো অথবা চুল্লির জ্বালানি হিসেবে ব্যবহার করার মতো প্রস্তাব নিয়ে আলোচনা চলছে৷ এই সব প্রশ্নে অগ্রসর হওয়ার পূর্বশর্ত হিসেবে ইরান আরও নিষেধাজ্ঞা তুলে নেবার দাবি করছে৷

ইরান সত্যি ইতিবাচক পদক্ষেপ নিলে পশ্চিমা বিশ্বকেও সেই অনুযায়ী সহায়ক পদক্ষেপ নিতে হবে৷ মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা সেনেট-এর নেতাদের সঙ্গে আলোচনা করে ইরানের উপর নতুন কোনো নিষেধাজ্ঞা না চাপানোর চেষ্টা করছেন৷ গত সপ্তাহে কংগ্রেসের উদ্দেশ্যেও একই আহ্বান জানিয়েছিলেন তিনি৷ পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরি প্রত্যাশার মাত্রা কম রেখেও সাফল্যের চেষ্টা চালিয়ে যেতে চান৷ ইসরায়েলের আপত্তির কারণগুলি মনে রেখেই ইরানের সঙ্গে আলোচনার ইঙ্গিত দিয়েছেন তিনি৷

রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুটিন ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতোল্লাহ খামেনেই-র সঙ্গে টেলিফোনে পরমাণু আলোচনার বিষয়ে আলোচনা করেছেন৷ পুটিন বলেন, দীর্ঘদিনের এই সংকট কাটার সম্ভাবনা সত্যি উজ্জ্বল হয়ে উঠেছে৷ উল্লেখ্য, গতবারের আলোচনায় এমন ইতিবাচক পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছিল, যে একে একে অংশগ্রহণকারী দেশগুলির পররাষ্ট্রমন্ত্রীরাও তাতে যোগ দেন৷ জার্মান পররাষ্ট্রমন্ত্রী গিডো ভেস্টারভেলে বলেছেন, অগ্রগতি ঘটলে এবারও তাঁরা আলোচনায় যোগ দিতে প্রস্তুত৷

এসবি / জেডএইচ (ডিপিএ, রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়