1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

আফ্রিকার চার শীর্ষ নেতা বাগবোর সঙ্গে দেখা করলেন

আইভরি কোস্টে লঁরা বাগবোর সঙ্গে আবারও বৈঠক করলেন আফ্রিকার শীর্ষ চার নেতা৷ তাদের আলোচনা কেমন হলো সেটা জানা যাবে আজ মঙ্গলবার৷

default

বাগবো: আমিই প্রেসিডেন্ট

শীর্ষনেতা কারা

প্রথমবারের আলোচনায় থাকা তিনজন, মানে বেনিন, সিয়েরা লিওন ও কেপ ভের্ডের প্রেসিডেন্টদের সঙ্গে ছিলেন কেনিয়ার প্রধানমন্ত্রী রায়েলা ওদেঙ্গা৷ এর মধ্যে তিন প্রেসিডেন্ট গেছেন পশ্চিম আফ্রিকার দেশগুলোর সংগঠন ইকোওয়াসের প্রতিনিধি হিসেবে৷ আর কেনিয়ার প্রধানমন্ত্রী গেছেন আফ্রিকান ইউনিয়নের প্রতিনিধি হিসেবে৷ তাঁরা বাগবোর সঙ্গে কোনো ধরনের আপোস করতে নয় বরং তিনি কীভাবে শান্তিপূর্ণভাবে ক্ষমতা হস্তান্তর করতে পারেন সেটাই আলোচনা করেছেন, বলে জানান সিয়েরা লিওনের তথ্যমন্ত্রী ইব্রাহিম বেন কারবো৷ এদিকে আলোচনাকে ফলপ্রসু বলেছেন কেনিয়ার প্রধানমন্ত্রী৷ আর সিয়েরা লিওনের প্রেসিডেন্ট বলছেন আরেক দফা আলোচনা হবে৷ কিন্তু আলাসানে ওয়াতারা পরিষ্কার বলে দিয়েছেন আলোচনা শেষ এবং বাগবোকে অবশ্যই ক্ষমতা ছাড়তে হবে৷

পরিস্থিতি কোন দিকে যাচ্ছে

সেটা বোঝা যাবে আজ মঙ্গলবার৷ কারণ ইকোওয়াসের বর্তমান চেয়ারম্যান ও নাইজিরিয়ার প্রেসিডেন্ট গুডলাক জনাথন বলেছেন মঙ্গলবারের মধ্যেই পরবর্তী পদক্ষেপ ঠিক করবেন তারা৷ এদিকে বাগবো ক্ষমতা না ছাড়লে সামরিক শক্তি প্রয়োগের যে হুমকি ইকোওয়াস দিয়েছে সেটা বাস্তবায়ন করতে পশ্চিম আফ্রিকার দেশগুলোর শীর্ষ সামরিক নেতারা গত সপ্তাহে একদফা আলোচনা করেছেন বলে খবর পাওয়া গেছে৷ তাদের পরবর্তী বৈঠকটি হওয়ার কথা এ মাসেরই ১৭ তারিখে৷

এদিকে বাগবো চাইলে অ্যামেরিকায় থাকতে পারবে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা৷ তিনি বলেন, বাগবো ক্ষমতা ছেড়েছেন, এটা দেখতে চায় যুক্তরাষ্ট্র৷ এরপর যদি তিনি যুক্তরাষ্ট্রে বাস করতে চান, তাহলে সেই সুযোগও তাঁকে দেয়া যেতে পারে, এমন আভাসই দিলেন ঐ কর্মকর্তা৷ তবে তিনি এও বলেছেন যে, এই সুযোগ নেয়ার মেয়াদ শেষ হয়ে যাচ্ছে৷ বাগবোকেও এই সুযোগের কথা জানানো হয়েছে বলে জানান৷ উল্লেখ্য, যুক্তরাষ্ট্রের জর্জিয়ায় বাগবোর অনেক আত্মীয় স্বজন থাকেন৷

আলাসানে ওয়াতারা এখন একটি পাঁচতারা হোটেলে বসে সরকার পরিচালনা করছেন৷ আর তাঁর নিরাপত্তার দায়িত্বে আছেন জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা বাহিনীর প্রায় ৮০০ সদস্য৷

প্রতিবেদন: জাহিদুল হক

সম্পাদনা: ফাহমিদা সুলতানা

সংশ্লিষ্ট বিষয়