1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

আফগান প্রশিক্ষকদের উন্নয়নে সহায়তার প্রতিশ্রুতি

বেলজিয়ামের রাজধানী ব্রাসেলস-এ ন্যাটো প্রতিরক্ষান্ত্রীদের বৈঠক শেষ হয়েছে শুক্রবার৷ আফগানিস্তানে ন্যাটো নেতৃত্বাধীন বাহিনীতে প্রতিনিধিত্বকারী ৪৬টি দেশের প্রতিরক্ষামন্ত্রীরা এই বৈঠকে যোগ দেন৷

default

ন্যাটো মহাসচিব রাসমুসেন

আফগান প্রশিক্ষকদের উন্নয়নে সহায়তা করার প্রতিশ্রুতি দানের মধ্যে দিয়ে শেষ হয়েছে ব্রাসেলস-এ প্রতিরক্ষামন্ত্রীদের বৈঠক৷ প্রশিক্ষন দান শেষে চলতি বছর দেশটি থেকে সৈন্য প্রত্যাহার শুরু করারও আশা প্রকাশ করেন প্রতিরক্ষামন্ত্রীরা৷

আফগানিস্তানের ভয়াবহ সংঘাত থেকে নিজেদের সৈন্য প্রত্যাহার করার ব্যপারে প্রতিটি দেশ আন্তরিক হওয়া সত্ত্বেও, আফগান নিরাপত্তা বাহিনীকে জঙ্গি দমনে সক্ষম করে না তোলা পর্যন্ত তা করতে পারছে না কোন দেশই৷ কিন্তু ন্যাটো মিশনে এখনও প্রায় ৪৫০ জন প্রশিক্ষকের স্বল্পতা রয়েছে৷

বৈঠক শেষে প্রতিরক্ষামন্ত্রীরা এক যৌথ ঘোষণায় বলেন, আফগান জাতীয় নিরাপত্তা বাহিনীর যোগ্যতায় উল্লেখযোগ্য উন্নতিকে আমরা স্বাগত জানায়৷ এবং অগ্রগতিকে ধরে রাখতে সমর্থন দেওয়ার ব্যাপারে প্রতিশ্রুতির জন্যেও তাদেরকে স্বাগত জানাই৷ চলতি সপ্তাহের শুরুতে ন্যাটো মহাসচিব এ্যান্ডার্স ফগ রাসমুসেন বলেছেন, আফগান নিরাপত্তা বাহিনীর জন্যে ন্যাটো জোটের মোট ২ হাজার ৩শ প্রসিক্ষকের ভেতর থেকে এখনও ৪৫০ জন প্রশিক্ষকের ঘাটতি রয়েছে৷ এবং বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় তিনি আরও প্রশিক্ষক পাঠানোর জন্যে প্রতিরক্ষামন্ত্রীদের ওপর চাপ প্রয়োগ করার প্রতিশ্রুতি দেন৷ শুক্রবার ব্রাসেলস-এ বৈঠকের শুরুতেই রাসমুসেন বলেন, আফগান সেনাবাহিনী এবং পুলিশকে দায়িত্ব নিতে প্রস্তুত করার জন্যে প্রশিক্ষক মিশনকে আরও কার্যকর করতে হবে, এবং এই বিষয়টি নিয়েই আমরা কথা বলব৷

ন্যাটো নেতৃত্বাধীন আন্তর্জাতিক নিরাপত্তা সহযোগিতা সংস্থা আইসাফ-এর সদস্য সংখ্যা ১ লাখ ২০ হাজার৷ তবে জার্মানি এবং ইটালির মতো দেশের সৈন্যদের ওপর প্রশিক্ষন দেয়ার চাপটি বেশি রয়েছে৷ আফগানিস্তানে জার্মানির সৈন্য সংখ্যা চার হাজার ৩ শ এবং ইটালির সৈন্য সংখ্যা তিন হাজার ৩ শ৷ আর এই কারণেই এইসব দেশের সৈন্যরা কোথায় য়াবে এবং কী করবে এই নিয়ে সব সময় চাপের মধ্যে থাকে৷

ব্রিটিশ প্রতিরক্ষামন্ত্রী লিয়াম ফক্স বলেছেন, কিছু দেশের সৈন্যরা রাজনৈতিক এবং সাংবিধানিক কারণে আফগানিস্তানে কাজ করার সময় চাপের মধ্যে রয়েছে৷ তিনি বলেন, তবে কোন দেশের আরও প্রশিক্ষক না পাঠানোর কোন কারণ নেই৷

প্রতিবেদন: ফাহমিদা সুলতানা

সম্পাদনা: আবদুস সাত্তার

সংশ্লিষ্ট বিষয়