1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

আফগানিস্তানে নিহত জার্মান সৈন্যদের সমাধি অনুষ্ঠান

এক সপ্তাহ আগে উত্তর আফগানিস্তানের কুন্দুসের কাছে নিহত তিনজন জার্মান সৈন্যের সমাধি-অনুষ্ঠানে শুক্রবার চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেল এবং প্রতিরক্ষামন্ত্রী কার্ল-থেওডোর সু গুটেনবের্গ, উভয়েই উপস্থিত ছিলেন৷

default

জেইসলিংগেনের গির্জায় সমাধি অনুষ্ঠান

সমাধি অনুষ্ঠানটি সম্পাদিত হয় নিম্ন স্যাকসনি'র জেইসলিংগেন-এর একটি গির্জায়৷ যে প্যারাট্রুপার বাহিনীর ২৫, ২৮ এবং ৩৫ বছর বয়সি তিনজন সদস্য কুন্দুসের পথে মাইনবোমা খোঁজার সময় তালেবানের চোরাগোপ্তা আক্রমণে নিহত হয়েছেন, সেই বাহিনীর মুখ্য শিবিরটি জেইসলিংগেন-এর কাছে৷ বাহিনীর প্রায় বাদবাকি সব সৈন্য - সংখ্যায় প্রায় ৬০০ - জেইসলিংগেনের ছোট্ট গির্জাটিতে স্থান পেত না বলে বাইরে ভিডিও স্ক্রিনিং-এর ব্যবস্থা রাখা হয়েছিল৷ ভিতরে নিহতদের পরিবারবর্গ এবং বিশিষ্ট রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন, তাঁদের মধ্যে জার্মান চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেল এবং প্রতিরক্ষামন্ত্রী কার্ল-থেওডোর সু গুটেনবের্গ৷ গুটেনবের্গ এক সপ্তাহ আগেই তাঁর ইস্টারেরর ছুটি ভঙ্গ করেছেন৷ ম্যার্কেল যে মাত্র গত বৃহস্পতিবার তাঁর ইস্টারের ছুটি ভঙ্গ করে এই সমাধি অনুষ্ঠানে যোগদানের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, তা তাঁর নিজের দল সিডিইউ-সিএসইউ-এর কিছু মহল থেকেও সমালোচিত হয়েছে৷

Afghanistan Bundeswehr Trauerfeier

গির্জায় ঢোকার পথে ম্যার্কেল এবং গুটেনবের্গ

তবে সমাধি অনুষ্ঠানে ম্যার্কেল এবং তাঁর প্রতিরক্ষামন্ত্রী, উভয়কেই দেখা গেল বিশেষভাবে আলোড়িত এবং শোকাভিভূত৷ অপরদিকে ম্যার্কেল তাঁর ভাষণে আফগানিস্তানে জার্মান সেনাবাহিনীর অভিযানের প্রতি স্পষ্ট সমর্থন জানালেন, কোনো পশ্চাদপসারণের তারিখ উল্লেখ না করেই৷ অনেকে যে ‘বুন্ডেসভের'-এর আফগানিস্তান মিশন'কে যুদ্ধযাত্রা বলে অভিহিত করছে, সেটাও তাঁর কাছে বোধগম্য, বললেন ম্যার্কেল৷ - গুটেনবের্গ বললেন: ‘‘গুড ফ্রাইডে'তে আমরা কুন্দুসে যা ঘটতে দেখেছি, তা'কে অধিকাংশ মানুষ বোধগম্য ভাবেই যুদ্ধ বলে বর্ণনা করে৷ আমি নিজেও৷ আমাদের সৈন্যরা সে বিপদের কথা জানে, কিন্তু তা তাদের সাহস এবং দৃঢ়বদ্ধতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করা থেকে রুখতে পারে না৷''

সমাধি অনুষ্ঠানের দিনও সুদূর কুন্দুসে জার্মান সেনাবাহিনীর উপর একাধিক আক্রমণ ঘটেছে৷ জেইসলিংগেনের শোকানুষ্ঠানের কয়েক ঘণ্টা আগে জার্মান সেনাবাহিনীর একটি গাড়ি একটি পথবিস্ফোরণে ক্ষতিগ্রস্ত হয়৷ এবং অনুষ্ঠান চলাকালীন জার্মান সেনা ছাউনির প্রায় এক কিলোমিটার দূরে সর্বসমেত ছ'টি রকেট কিংবা মর্টারের গোলা এসে পড়ে৷ - প্রসঙ্গত, এ'পর্যন্ত ৩৯ জন জার্মান সৈন্য আফগানিস্তানে প্রাণ হারিয়েছে৷

প্রতিবেদক: অরুণ শঙ্কর চৌধুরী

সম্পাদনা: হোসাইন আব্দুল হাই

সংশ্লিষ্ট বিষয়