1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

আফগানিস্তানে জার্মানির সৈন্যসংখ্যা বৃদ্ধি অনুমোদন করল সংসদ

জার্মান সংসদের নিম্ন কক্ষ বুন্ডেস্টাগ আফগানিস্তানে জার্মানির সৈন্যসংখ্যা এখনকার ৪,৫০০ থেকে ৫,৩৫০-এ বাড়ানোর প্রস্তাব অনুমোদন করেছে৷ এই মিশন চালানোর ম্যান্ডেট ২০১১ সালের ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত আরও এক বছর বাড়ানো হয়েছে৷

default

শুনছেন ম্যার্কেল, সঙ্গে ভেস্টারভেলে

পররাষ্ট্রমন্ত্রী গিডো ভেস্টারভেলে সংসদে কোয়ালিশন সরকারের নতুন আফগানিস্তান নীতির পক্ষে ব্যাপক সমর্থনকে ‘‘দায়িত্ব ও যুক্তির জয়'' বলে অভিহিত করেছেন৷ উদারপন্থী এফডিপি-র নেতা বুন্ডেস্টাগে ভোটাভুটির পর জোর দিয়ে বলেন, ‘‘আফগনিস্তান নীতির ক্ষেত্রে এক নতুন অধ্যায় সূচিত হল৷''

এর আগে বুন্ডেস্টাগ জার্মান সশস্ত্র বাহিনীর নতুন আফগানিস্তান সংক্রান্ত ম্যান্ডেট বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠ ভোটে অনুমোদন করে৷ এর মধ্য দিয়ে আফগানিস্তানে জার্মানির সৈন্যসংখ্যা বেড়ে হবে ৫,৩৫০৷ ২০১১ সাল থেকে নিরাপত্তা রক্ষার দায়িত্ব ধাপে ধাপে আফগান বাহিনীর হাতে তুলে দেয়া হবে৷ তবে ঐ দেশে জার্মান সৈনিকদের মিশন কবে শেষ হবে তার কোন সুনির্দিষ্ট তারিখ তিনি উল্লেখ করেন নি৷

Linke Linksfraktion Bundestag Bundeswehr Afghanistan Kunduz Protestaktion Protest Flash-Galerie

ব্যানার হাতে প্রতিবাদে ডি-লিংক সাংসদরা

জার্মানির আফগানিস্তাননীতি ও সৈনিকদের তৎপরতা নিয়ে বিতর্ক খুব বেশি দূর এগিয়ে যাওয়ার আগেই বিরোধী দল ডি লিংকের সাংসদ ক্রিস্টিয়ানে বুখহলৎস হৈচৈ ফেলে দেন৷ এই মিশন প্রত্যাখ্যান করে তিনি বলেন, ‘‘বহু মানুষের সঙ্গে দেখা করে এটা আমার কাছে স্পষ্ট - আপনারা মানতে চান বা নাই চান - জার্মানি আফগানিস্তানে সাধারণ মানুষদের বিরুদ্ধে এক যুদ্ধে অংশ নিচ্ছে৷''

ঠিক এই সময়ে ডি লিংকের সংসদীয় গোষ্ঠীর সাংসদরা উঠে দাঁড়ান এবং কুন্দুসের বিমান হামলায় নিহতদের নাম সম্বলিত ব্যানার তুলে ধরেন৷ গত সেপ্টেম্বর মাসে তালেবান অপহৃত এক পেট্রল ট্রাকের ওপর ন্যাটোর বিমান হামলায় ১৪২ জন আফগান নিহত হন৷ একজন জার্মান কর্নেল ঐ হামলা চালাতে বলেছিলেন৷ সরকারি কোয়ালিশন দল সিডিইউ-র রাজনীতিক, বুন্ডেস্টাগের স্পিকার নরবার্ট লাম্যার্ট সংসদের ভিতর এই মৌন প্রতিবাদ মেনে নিতে পারেননি৷ তিনি বলেন: ‘‘আপনাদের আমি দ্ব্যর্থ্যহীন ভাষায় বলছি, ব্যানার নামিয়ে ফেলুন৷ যাঁরা এই আহ্বানে সাড়া দেবেননা তাঁদের আমি এই অধিবেশনে আর যোগ দিতে দেবনা৷''

ডি লিংকের সাংসদরা সংসদকক্ষ ছেড়ে চলে গেলে বিতর্ক চলতে থাকে৷ বিভিন্ন দলের সাংসদরা বক্তব্য রাখেন৷ ম্যান্ডেটের মেয়াদ ও সৈন্যসংখ্যা বাড়ানোর প্রস্তাবের পক্ষে ভোট দেন ৪২৯ জন সাংসদ৷ বিপক্ষে পড়ে ১১টি ভোট৷ ভোটদানে বিরত থাকেন ৪৬ জন৷ পররাষ্ট্রমন্ত্রী ভেস্টারভেলে এবং প্রতিরক্ষামন্ত্রী থেয়োডর সু গুটেনব্যার্গ অধিবেশনে বক্তব্য রাখেন নি৷ দুই কোয়ালিশন দলের সংসদীয় গোষ্ঠীর বক্তারা সাংসদদের প্রতি সরকারের আফগানিস্তাননীতি সমর্থনের আহ্বান জানান৷

প্রতিবেদক: আব্দুল্লাহ আল-ফারূক

সম্পাদনা: আবদুস সাত্তার

সংশ্লিষ্ট বিষয়