1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

আফগানিস্তানে অর্থনৈতিক উন্নয়নে আরও সহায়তা দেবে চীন

চীন ও আফগানিস্তানের কূটনৈতিক সম্পর্ক প্রতিষ্ঠার ৫৫তম বর্ষপূর্তি উপলক্ষে এখন বেইজিং সফরে রয়েছেন আফগান প্রেসিডেন্ট হামিদ কারজাই৷ বেইজিং-এ গ্রেট হল অফ চায়নায় প্রেসিডেন্ট হু জিনতাও-এর সঙ্গে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়৷

default

চীনে গার্ড অফ অনার নিচ্ছেন হামিদ কারজাই

বৈঠক শেষে জানানো হলো, আফগানিস্তানে অর্থনৈতিক উন্নয়নে আরও বেশি সহায়তা দেবে চীন৷

চীনা রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থার বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা ডিপিএ জানিয়েছে, চীনা প্রেসিডেন্ট এই বৈঠক দু'দেশের বাস্তবমুখী সহযোগিতা ত্বরান্বিত করবে বলে আশাবাদ প্রকাশ করে বলেছেন, চীন ও আফগানিস্তানের সার্বিক সহযোগিতামূলক অংশীদারিত্বের সম্পর্ক আরও একটি নতুন পর্যায়ে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া সম্ভব৷

আলোচনাকালে প্রেসিডেন্ট কারজাই সাম্প্রতিক সময়ে আফগানিস্তানকে নানা ধরণের সহায়তা এবং উৎসাহ প্রদান করায় চীনকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান৷ কেবল আলোচনা বা কথাবার্তার মধ্যেই সীমাবদ্ধ ছিলনা এই দুই নেতার বৈঠকে৷ দু'জনের সামনেই স্বাক্ষরিত হয় তিনটি দ্বিপাক্ষিক চুক্তি৷ মূলত আর্থিক এবং কারিগরি খাতে সহযোগিতা ও সহায়তা বিষয়েই এই সব চুক্তি৷

চীনা গণমাধ্যম এই চুক্তিগুলোর বিষয়ে বিস্তারিত কিছু প্রকাশ না করা হলেও আফগান প্রেসিডেন্টের অফিস থেকে জানানো হয়েছিল, কারজাই-এর সফরকালে ২৩ দশমিক ৪ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের একটি সহায়তা চুক্তি হতে পারে৷

একটি চীনা পত্রিকায় জানানো হয়েছে, ২০০২ সাল থেকে এ পর্যন্ত চীন ১৭৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের শর্তমুক্ত সাহায্য দিয়েছে আফগানিস্তানকে৷

চীনা রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন জানিয়েছে, কারজাই আলাপকালে বলেছেন, দেশের শান্তি এবং স্থিতি রক্ষার্থে আফগানিস্তান জঙ্গি এবং সন্ত্রাসবাদ নির্মূল করতে কঠোরভাবে কাজ করছে৷ আঞ্চলিক শান্তি রক্ষার্থে চীন খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে বলে উল্লেখ করে তিনি বলেন, আফগানিস্তানে কর্মরত চীনা কর্মীদের নিরাপত্তা বিধানে আরো ঘনিষ্টভাবে কাজ করতে চান তারা৷

আফগানিস্তানের সঙ্গে রাজনীতি, বাণিজ্য, জনস্বাস্থ্য এবং নিরাপত্তা খাতে চীনা সহায়তার আশ্বাস দেন প্রেসিডেন্ট হু জিন তাও৷ তিনি বলেন, আফগানিস্তানে কর্মরত চীনা নাগরিকদের জীবনের নিরাপত্তা বিধানের বিষয়টি আফগান সরকার নিশ্চিত করবে এই আশা করেন তারা৷

হু জিন তাও বেশ প্রশংসাও করেছেন তিন দিনের সফরে যাওয়া প্রেসিডেন্ট কারজাই-এর৷ বলেছেন, দীর্ঘকাল ধরে চীন ও আফগানিস্তানের ঐতিহ্যবাহী মৈত্রীর প্রতি অবিচল রয়েছেন তিনি৷ সেই সঙ্গে দু'দেশের সম্পর্ক উন্নয়নে বেশ গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখছেন৷ আফগান পররাষ্ট্র এবং প্রতিরক্ষা মন্ত্রীসহ সে দেশের সরকারি এবং বেসরকারি বাণিজ্যখাতের ২০ জন উচ্চ পদস্থ ব্যক্তি হামিদ কারজাই এর সঙ্গে চীন সফর করছেন৷ আফগানিস্তানের প্রেসিডেন্ট হিসেবে চতুর্থবারের মত চীন সফর করছেন হামিদ কারজাই৷

প্রতিবেদন: সাগর সরওয়ার

সম্পাদনা: আব্দুল্লাহ আল ফারূক

সংশ্লিষ্ট বিষয়