1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিজ্ঞান পরিবেশ

আপনার কাঙ্খিত ঠিকানা কোন ভবনের পাশে, বলবে যন্ত্র

আমরা যখন কাউকে কোন ঠিকানা জানিয়ে দেই তখন সাধারণত ওমুক ভবনের পাশের রাস্তা বা ওমুক ব্যাংকের পাশের গলি, এভাবেই বলে থাকি, তাইনা?

default

গাড়িতে থাকা একটি নেভিগেটর

এবার এই কাজটা করবে যন্ত্র৷ আপনি যেখানেই যান রাস্তা না চিনলেও সমস্যা নেই৷ যন্ত্রই বলে দেবে কোথায় কীভাবে যেতে হবে৷ এভাবে যন্ত্রের সহায়তা নিয়ে ঠিকানা চেনার গল্পটা উপমহাদেশে নতুন হতে পারে৷ কিন্তু উন্নত বিশ্বে কিন্তু এভাবেই মানুষ ঠিকানা বের করে থাকে৷ এজন্য প্রতিটি গাড়িতে থাকে ‘নেভিগেটর'৷ গ্লোবাল পজিশনিং সিস্টেমস বা জিপিএস ব্যবহার করে কাজটি করে থাকে এই নেভিগেটর৷

কিন্তু এসব নেভিগেটরের সমস্যা হলো এটা বলে থাকে যে ২০০ মিটার সামনে গিয়ে ডানে বা বামে যেতে হবে৷ কিন্তু এভাবে মিটারের হিসেবে অনেক সমস্যা৷ এমনও শোনা যায়, এভাবে যন্ত্রের কথা শুনে মিটারের হিসেব ঠিকমত বের করতে না পেরে কেউ কেউ বনে-বাদারে বিপজ্জনক জায়গায় চলে গেছেন৷

এই সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে আসছে নতুন এই যন্ত্র - যেটা নিয়ে আসার কথা বলছে নকিয়ার মালিকানায় থাকা নাভটেক কোম্পানি৷ ইতিমধ্যে তারা বিশ্বের বিভিন্ন দেশের শহরের রাস্তাগুলোর ছবি তুলতে শুরু করেছে৷ কোম্পানির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ফ্রাঙ্ক পাওলি বলছেন, আগামী বছরের মধ্যেই ক্রেতাদের হাতে চলে আসতে পারে যন্ত্রটি৷

তিনি বলছেন, নিরাপত্তার দিকে দিয়ে চিন্তা করলেও তাদের যন্ত্রটি ভাল৷ কেননা বর্তমানে নেভিগেটরের কাছ থেকে মিটারে দিকনির্দেশনা শোনার পর তা বুঝতে না পেরে ছবি দেখার জন্য স্ক্রিনের দিকে বারবার তাকাতে হয়৷ এতে দুর্ঘটনার সম্ভাবনা থাকে৷ কিন্তু নতুন এই যন্ত্রে স্থাপনার কথা বলা মাত্র তা সামনের দিকে তাকিয়ে খুঁজে নিতে হবে৷ ফলে দুর্ঘটনার সম্ভাবনা থাকছেনা৷

তবে এই ক্ষেত্রে সমস্যাও আছে৷ যেমন এমন কোন বিল্ডিংয়ের কথা বলা হলো যেটা কোন এক সময় ভেঙে ফেলা হলো৷ তখন কী হবে৷ আবার এমনও হতে পারে গ্রীষ্মকালে গাছের পাতায় ঢেকে যেতে পারে কোন বিল্ডিং৷ তখনও সমস্যায় পড়তে হবে চালকদের৷

প্রতিবেদন: জাহিদুল হক

সম্পাদনা: রিয়াজুল ইসলাম

সংশ্লিষ্ট বিষয়