1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে বিদায় নিলেন আফ্রিদি

স্বভাববশত খেলার মাঠে হৈ চৈ করার জন্য শহিদ আফ্রিদি’কে অনেকেই চেনেন ‘বুম্ বুম্’ আফ্রিদি হিসেবে৷ কিন্তু, সেই আফ্রিদিই এবার বিদায় নিলেন অত্যন্ত সন্তর্পণে৷ প্রায় কাউকে কিছু না বলেই৷

default

আফ্রিদি বিদায় নিলেন অত্যন্ত সন্তর্পণে

কিছুদিন আগেই পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড বা পিসিবি'র কর্মকর্তারা জানিয়েছিলেন, আবারো অধিনায়ক হিসেবে একদিন ও টি-টোয়েন্টি ম্যাচের নেতা হওয়ার সম্ভবানা শেষ আফ্রিদির৷ এর কারণ, তিন ধরণের ফরম্যাটে আলাদা আলাদা অধিনায়কের নীতি থেকে সরে আসার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন পিসিবি সভাপতি ইজাজ বাট৷ যার অর্থ, পাকিস্তানের সব ধরণের খেলায় এবার থেকে নেতৃত্ব দেবেন মিসবাহ উল হক৷

এই ঘোষণার পর থেকেই, আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পাকিস্তানের অন্যতম ‘অল-রাউন্ডার' শহিদ আফ্রিদির ভবিষ্যতটা বেশ একটু টলমলে অবস্থায় চলে আসে৷ প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই অধিনায়কত্ব হারিয়ে খবরের শিরোনাম হন আফ্রিদি৷ অপরাধ, কোচ ওয়াকার ইউনিসের সঙ্গে বিবাদ৷ মূলত, ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সেরা একাদশ গঠন নিয়ে কোচের সঙ্গে তর্ক করেন আফ্রিদি৷ যোগ্য নেতৃত্ব দিয়ে ২০১১ সালের বিশ্বকাপে পাকিস্তান দলকে নিয়ে যান শেষ চারে৷ তাঁর কথায়, ‘আমি আমার দেশ এবং দেশের মানুষের জন্য লড়েছিলাম৷'' একদিনের ক্রিকেটে আফ্রিদির ‘দুর্ধর্ষ' ব্যাটিং এবং অসাধারণ ‘লেগ স্পিন' কার না মনে আছে ? কিন্তু তারপরও, তাঁর নেতৃত্ব কেড়ে নেয় পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড৷

আর এবার, সেই বিবাদের সূত্র ধরেই অবসর নেওয়ার সিদ্ধান্ত ৩১ বছর বয়স্ক এই ক্রিকেটারের৷ প্রসঙ্গত, ৩২৫টি একদিনের ক্রিকেটে তাঁর স্কোর ৬,৬৯৫ রান৷ আর উইকেট সংগ্রহ ৩১৫টি৷ এছাড়া, ২৭টি টেস্ট ম্যাচে মোট ১,৭১৬ রান এবং ৪৮টি উইকেটও নিয়েছিলেন শহিদ আফ্রিদি৷

প্রতিবেদন: দেবারতি গুহ

সম্পাদনা: আব্দুল্লাহ আল-ফারূক

সংশ্লিষ্ট বিষয়