1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

আত্মঘাতী হামলা

বাংলাদেশে জঙ্গিদের আত্মঘাতী প্রবণতা সাম্প্রতিক৷ গত জুলাই মাসে ঢাকার হোলি আর্টিজান রেস্টুরেন্টে জঙ্গি হামলার পর, জঙ্গিবিরোধী অভিযান তীব্র হলে এই প্রবণতা স্পষ্ট হয়ে ওঠে৷ জঙ্গিরা একাধিক আত্মঘাতী হামলা চালায়, হয় আত্মঘাতী৷

জঙ্গিদের সুইসাইড গ্রুপ বাংলাদেশে নতুন হলেও সারা বিশ্বে এর অনেক নজির আছে৷ আল-কায়েদা থেকে তথাকথিত ইসলামিক স্টে (আইএস) – সব জঙ্গি গ্রুপেরই আত্মঘাতী হামলার রেকর্ড আছে৷ আত্মঘাতী হামলাকারীরা নিজেরা মরে ব্যাপক হত্যা বা ধ্বংসযজ্ঞ চালাতে চায়৷ এমনকি আত্মঘাতী হামলার মধ্য দিয়ে সরকার বা রাষ্ট্রপ্রধানকে হত্যাচেষ্টার নজিরও আছে৷ আত্মঘাতীরা তাদের শরীরে বিস্ফোরক ভর্তি বোমা বেধে নিজেরাই একটি ধ্বংসাত্মক ডিভাইসে পরিণত হয়৷ পরে সেই বোমার বিষ্ফোরণ ঘটিয়ে টর্গেটের লোকজনকে হত্যার সঙ্গে সঙ্গে নিজেও নিহত হয়৷ ফলে এই প্রবণতা সবচেয়ে ভীতিকর এবং ধ্বংসাত্মক৷ সাধারণভাবে তাদের ঠেকানো খুবই কঠিন৷ এ কারণে বাংলাদেশে এই আত্মঘাতী জঙ্গিরাই এ মুহূর্তে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর মাথাব্যাথার প্রধান কারণে পরিণত হয়েছে৷

আরও লেখা