1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

আত্মঘাতী হামলা ও আইনজীবী হত্যার মধ্যে যোগসূত্র

পাকিস্তানের কোয়েটার হাসপাতালে ভয়াবহ আত্মঘাতী বোমা হামলায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৭১ জনে৷ হামলার আগে এক আইনজীবীকে হত্যা করে পরিকল্পনামাফিকই এ হামলা চালানো হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ৷

পূর্ব পরিকল্পিত

বেলুচিস্তানের স্বরাষ্ট্র সচিব আকবর হারিফাল বলেছেন, সোমবার সকালে কোয়েটাতে অজ্ঞাত বন্দুকধারীর গুলিতে বেলুচিস্তান বার অ্যাসোসিয়েশনের সাবেক প্রেসিডেন্ট বিলাল আনওয়ার কাসি নিহত হওয়ার পর হাসপাতালে আইনজীবী ও সাংবাদিকরাসহ শোকাহতরা জড়ো হওয়ার সময় ওই বিস্ফোরণ ঘটে৷

ফরিদুল্লাহ নামে ঘটনাস্থলে উপস্থিত এক সাংবাদিক রয়টার্সকে বলেন, বোমাটি যখন বিস্ফোরিত হয় তখন শতাধিক মানুষ কাসির লাশ নিয়ে হাসপাতালের জরুরি বিভাগে ঢুকছিলেন৷ নিহতদের বেশিরভাগই আইনজীবী এবং দু'জন সাংবাদিক৷ জ্যেষ্ঠ পুলিশ কর্মকর্তা জহুর আহমেদ আফ্রিদি জানান, আহতদের মধ্যেও বেলুচিস্তান বার অ্যাসোসিয়েশনের সাবেক প্রেসিডেন্ট বাজ মোহাম্মদ কাকারসহ বেশ কয়েকজন আইনজীবী রয়েছেন৷

তাই দু'টি ঘটনার মধ্যে যোগসূত্র আছে বলে মনে করছেন আফ্রিদি৷ তিনি বলেন, এটি একটি আত্মঘাতী হামলা এ বিষয়ে তারা নিশ্চিত৷ আর কাসির মরদেহ হাসপাতালে নিয়ে আসার অল্প কিছুক্ষণ পরেই বিস্ফোরণ ঘটে, যেটা থেকেই মনে হয় কাসির মৃত্যু এবং হামলার মধ্যে যোগসূত্র রয়েছে৷

প্রত্যক্ষদর্শী সাংবাদিকের ভাষ্য

সংবাদ সংস্থা এএফপি-র একজন সংবাদদাতা হামলার সময় মাত্র ২০ গজ দূরে ছিলেন৷ তিনি জানান, ভয়াবহ শব্দ আর ধোঁয়ার আচ্ছন্ন ছিলো চারপাশ, তিনি দৌড়াতে থাকেন আর চারপাশে অনেক মরদেহ পড়ে থাকতে দেখেন, আহত অনেকের কান্না ও চিৎকার শুনতে পাচ্ছিলেন তিনি৷ চারপাশে কেবল রক্ত আর মাংস ছড়িয়েছিলো বলে জানান তিনি৷

হামলার দায় স্বীকার

হামলার দায় স্বীকার করেছে তথাকথিত জঙ্গি গোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট বা আইএস৷ তাদের দাবি যে, এ বছরের মার্চ মার্স থেকে তারা দেশটিতে অবস্থান করেই এ পরিকল্পনা চালিয়ে আসছিল৷

খুরাসান এলাকার ইসলামিক স্টেট-এর এক ঘনিষ্ট সূত্র সংবাদ সংস্থা ডিপিএ কে জানিয়েছে, তারাই এ হামলা চালিয়েছে৷ সোমবার রাতে আমাক নিউজ এ সংক্রান্ত একটি বিবৃতি দিয়েছে৷

ভিডিও দেখুন 01:34

তবে তাদের দায় স্বীকার করার কয়েক ঘণ্টা পরে এ হামলার দায় স্বীকার করেছে তালেবানের একটি অংশ৷ তাদের দাবি পাকিস্তানে ইসলামি জঙ্গিদের বিরুদ্ধে সেনা অভিযানের প্রতিশোধ নিতেই এই হামলা চালিয়েছে তারা৷ গত বছর করাচিতে ইসমাইলি সম্প্রদায়ের উপর গুলি চালিয়ে ৪৪ জনকে হত্যার দায়ও স্বীকার করেছিল আইএস৷

প্রধানমন্ত্রীর নিন্দা

এই হামলার নিন্দা জানিয়ে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ বলেন, ‘‘কাউকেই এই অঞ্চলে শান্তি বিঘ্নিত করতে দেওয়া হবে না৷'' বেলুচিস্তানের জনগণ ও আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী দেশের জন্য অনেক আত্মত্যাগ করেছে বলে মন্তব্য করেন তিনি৷

মঙ্গলবার সকাল থেকেই বেলুচিস্তানের স্কুল কলেজ সব বন্ধ রয়েছে৷ পাশাপাশি জোরদার করা হয়েছে নিরাপত্তা৷

এপিবি/ডিজি (এপি, এএফপি, রয়টার্স, ডিপিএ)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়