1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

আডিডাস কি ফুটবল ভক্তদের দিকে নজর রাখছে?

খেলার সরঞ্জাম উৎপাদনকারী ব্র্যান্ড আডিডাসের তৈরি জার্সি নতুন এক বিতর্কের জন্ম দিয়েছে৷ জার্মান জাতীয় দলের জার্সিতে, যা সাধারণ মানুষও কিনতে পারে, বিশেষ আরএফআইডি ট্যাগ ব্যবহার করা হয়েছে৷ এই ট্যাগ দিয়ে নজরদারি সম্ভব৷

বিশ্বকাপ জয়ের পর জার্মান জাতীয় দলের জার্সির চাহিদা আরো বেড়েছে৷ এই কথা মাথায় রেখে দ্রুতই ‘চার তারকাবাহী' জার্সি বাজারে ছাড়ে আডিডাস৷ সবমিলিয়ে চলতি বছর জার্মান দলের দুই মিলিয়নের বেশি জার্সি বিক্রি করেছে আডিডাস৷

বিপত্তি ঘটেছে অন্যত্র৷ এসব জার্সিতে রয়েছে ‘রেডিও ফ্রিকোয়েন্সি আইডেনটিফিকেশন' বা আরএফআইডি চিপ৷ এই চিপ ইলেক্ট্রোম্যাগনেটিক ফিল্ডের মাধ্যমে তথ্য সরবরাহে সক্ষম৷ সাধারণত লজিস্টিক সেবাদাতারা তাদের কাজে এধরনের ট্যাগ ব্যবহার করে৷

চলতি বছরের শুরুতে জার্মান ইন্টারনেট ফ্রিডম গ্রুপ ‘ডিজিটালকারেজ' জানায়, আডিডাস জার্মান জাতীয় দলের জার্সিতে আরএফআইডি চিপ ব্যবহার করছে৷ এরপর বিষয়টি নিয়ে আলোচনা শুরু হয়৷ পরবর্তীতে আডিডাস এক বিবৃতিতে জানায়, লজিস্টিক প্রকল্পের অংশ হিসেবে প্রথমবারের মতো আরএফআইডি চিপ ব্যবহার করছে প্রতিষ্ঠানটি৷ তবে শুধুমাত্র ‘রিড-অনলি' এই চিপ তেমন বিশেষ কোনো তথ্য বহন করছে না বলেও জানিয়েছে আডিডাস৷ আর ক্রেতা চাইলে সেটি কেটে ফেলেও দিতে পারেন৷

এই বিবৃতিতে অবশ্য বিতর্ক কমেনি৷ বিশেষ করে ক্রেতাকে ভালোভাবে না জানিয়ে এভাবে ট্যাগ ব্যবহারকে নৈতিক মনে করছেন না অনেকে৷ জার্মানির স্লেশভিস হোলস্টাইন রাজ্যের তথ্য সুরক্ষা বিষয়ক কমিশনার থিও ভাইচার্ট এই বিষয়ে জানান, আরএফআইডি রিডার ব্যবহার করে খুব সহজেই একটি সুনির্দিষ্ট কাপড় শনাক্ত করা সম্ভব৷ আর সেই তথ্যের সঙ্গে ক্রেতার তথ্য জুড়ে দিয়ে একজন ব্যক্তির প্রোফাইলও তৈরি করা যেতে পারে৷

ভাইচার্ট বলেন, ‘‘আমি বলছি না আডিডাস বা অন্য কেউ এভাবে তথ্য সংগ্রহ করছে৷ তবে এই ফিচার সম্পর্কে ক্রেতাকে ভালোভাবে জানাতে হবে৷ শনাক্তকরণের এই ট্যাগ কিভাবে নষ্ট করা যায় সেটাও ক্রেতাকে অবগত করতে হবে৷''

উল্লেখ্য, আরএফআইডি ট্যাগ ব্যবহার সম্পর্কে আরো তথ্য জানতে ডয়চে ভেলের পক্ষ থেকে আডিডাস এবং জার্মান ফুটবল ফেডারেশনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়৷ তারা উভয়েই উপরে উল্লেখিত বিবৃতিটি ডয়চে ভেলেকে পাঠিয়েছে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন