1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

পাঠক ভাবনা

আজ বিশ্ব এইডস দিবস

আজ ১ ডিসেম্বর 'বিশ্ব এইডস দিবস ২০১০'৷ এবারের বিশ্ব এইডস দিবসের প্রতিপাদ্য বিষয় 'সবার জন্য সুযোগ ও মানবাধিকার'৷

default

এই শ্লোগানকে সামনে রেখে আমরা আমাদের সাউথ এশিয়া রেডিও ক্লাবের পক্ষ থেকে কিছু কর্মসূচি গ্রহণ করেছি৷ এ উপলক্ষে অন্যান্য সংগঠনের সাথে আমরাও শোভাযাত্রা, সেমিনারসহ নানা কর্মসূচির আয়োজন করেছি৷ আজ সকাল সাড়ে ৮টায় ঢাকার মানিক মিয়া এভিনিউয়ের পূর্ব পাশ থেকে বিভিন্ন সংগঠন মিলে স্ব স্ব ব্যানারে এইডস বিরোধী শোভাযাত্রা শুরু করি৷ সেখান থেকে আমাদের শোভাযাত্রাটি এসে শেষ হয় সাড়ে ১০টায় বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে৷ এরপর আমরা বাংলাদেশে বর্তমান এইডস পরিস্থিতির ওপর বিশেষ সেমিনারে অংশগ্রহণ করি৷

দিদারুল ইকবাল, তাছলিমা আক্তার লিমা, শহিদুল কায়সার লিমন, আনোয়ারা বেগম,তাছলিমা বেগম, শাহাদাত হোসেন, মুছলিমা বেগম, আব্দুর রাজ্জাক, জোবেদা রিনা,উম্মে সালমা মাছুমা, লিয়াকত আলী, হাজেরা বেগম, রফিকুল ইসলাম,আয়েশা বেগম,শাওন খান, আসিফুল ইসলাম রাতুল, সাউথ এশিয়া রেডিও ক্লাব,বাড়ি ৩৩৬,সেকশন-৭,রোড-২,মিরপুর, ঢাকা- ১২১৬, বাংলাদেশ৷

আজ বিশ্ব এইডস দিবস, আজ আমরা ক্লাবের সদস্যরা মিলিত হয়ে পদযাত্রার আয়োজন করেছিলাম৷ এবং সেখানে অনেক গণ্যমান্য ব্যক্তি উপস্থিত ছিলেন, আমরা তখন অনুষ্ঠান বিষয়েও আলোচনা করেছি যাতে কিছু শ্রোতা বৃদ্ধি পায়৷ কাঞ্চন কুমার চ্যাটার্জী, নতুন রেডিও লিসনার্স ক্লাব, শাহা নগর, মুর্শিদাবাদ, ভারত৷

আজ সকালে এফএম ব্যান্ডে ১০৪ মেগাহার্তস-এ বাংলাদেশের একগুচ্ছ তাজা খবর, পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট আসিফ আলি জারদারিকে ক্ষমতাধর সামরিক বাহিনী হয়তো তাঁর প্রেসিডেন্টপদ থেকে সরিয়ে দেবে-এমন এক গোপন তথ্য ফাঁস করলো উইকিলিক্স, মেক্সিকোর কানকুনে জাতিসংঘের বিশ্ব জলবায়ু সম্মেলন সম্পর্কে রিপোর্ট, লতা মঙ্গেশকরের কণ্ঠে গান এবং বাংলাদেশের বিজয় দিবস উপলক্ষে বিশেষ ধারাবাহিক পরিবেশনার ১ম পর্বে অবঃ মেজর জেনারেল কেএম শফিউল্লাহ সাহেবের চমত্কার সাক্ষাত্কারটি শুনে আমরা ক্লাবের সবাই ভীষণ খুশি হয়েছি৷ তবে ১০৪ মেগাহার্তস-এ এতো সুন্দরভাবে যে অনুষ্ঠান শুনতে পাবো - ভাবতে আবাক লাগছে! মোখলেসুর রহমান,কুষ্টিয়া, বাংলাদেশ৷

আজ বিশ্ব এইডস দিবস, ব়্যালি বের করেছি জনগণকে সচেতন করার লক্ষ্যে৷ আমরা জার্মানি থেকে এইডস সম্পর্কে বিভিন্ন তথ্যাদি জানতে চাই৷ নির্ঝরা অনামিকা, এফএম শ্রোতাসংঘ, প্রফেসর পাড়া, সলুয়া, চরঘাট, রাজশাহী, বাংলদেশ৷

হে জার্মান রেডিও, তোমার সংবাদ বলে বিশ্বের কথা, বলে জীবনের কথা,বলে বাংলাদেশের কথা৷ তাইতো তোমায় ঠাঁই দিয়েছি আমাদের অন্তরের মণিকোঠায়, থাকবে সেখানে চির অম্লান অক্ষয়৷ মোঃ নাজমুল শাহ, গাইবান্ধা, বাংলাদেশ৷

অনুষ্ঠান খুব ভালো লাগে আমি অনুষ্ঠান শুনছি৷ আমি আমার বন্ধুদেরও আপনাদের অনুষ্ঠান শুনতে বলছি৷ তারাও আমার মতো অনুষ্ঠান শুনছে৷ অনুষ্ঠান প্রচারের জন্য আপনাদের ধন্যবাদ৷ সায়মন আহমেদ আহমেদ সুমন, রংপুর, বাংলাদেশ৷

ডয়চে ভেলের অনুষ্ঠান খুব ভালো লাগছে৷ মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক নতুন অনুষ্ঠানে মুক্তিযুদ্ধের সময়কার রণকৌশল বিষয়ে সাক্ষাৎকার শুনতে চাই৷ চঞ্চল, রংপুর, বাংলাদেশ৷

কি হলো রাজশাহী বেতার কেন্দ্রের ? ২৯ নভেম্বরের মতো ৩০ নভেম্বর সকালেও এফএম ব্যান্ডে ১০৫ মেগাহার্তস-এ কোন অনুষ্ঠান শুনতে পেলামনা৷ চৈতালী ও ডা.সিদ্ধার্থ সরকার, জিয়াগঞ্জ, মুর্শিদাবাদ, ভারত৷

আমি এইডস সম্পর্কে আরো জানতে চাই৷ মোঃ মমিনুল ইসলাম, বাংলাদেশ৷

ডয়চে ভেলেকে বাহবা দিতে হবে কারণ আমি ডয়চে ভেলে রেডিওর প্রথম থেকেই একজন ভক্ত৷ এখন তো আবার চোখের সামনে ওয়েবসাইটে সবকিছু দেখতে ও পড়তে পারছি ফেসবুক, মোবাইলের মাধ্যমে৷ ডয়চে ভেলে আমাদের কত দিক দিয়ে সাহায্য করছে যা অন্য কোন রেডিও স্টেশনের সাথে তুলনা করা যায়না৷ আপনারা সবসময়ই শ্রোতাদের চাহিদার দিকে লক্ষ্য রাখেন৷ আমরা না চাইতেই অনেক কিছু পেয়েছি৷ আমি চিরদিন ডয়চে ভেলের সাথে থাকবো এই অঙ্গীকার করলাম৷ অপর্না চ্যাটার্জী, লালবাগ, মুর্শিদাবাদ, ভারত৷

বাংলা ভাষাভাষী শ্রোতাদের কাছে ডয়চে ভেলের ভাবমূর্তি নষ্ট হচ্ছে কারণ মিডিয়াম ওয়েভে কেউ শুনতে পায়না৷ ডয়চে ভেলের কাজে আর কথায় মিল নেই৷ মোবাইল পুরস্কার একদম ধোকাবাজি,কোন শ্রোতাই মোবাইল পায়না৷ আপনারা প্রযুক্তির ব্যবহারের কথা বলেন,আপনারা কি জানেন,ভারত, বাংলাদেশের অধিকাংশ শ্রোতা প্রযুক্তির ব্যবহার থেকে বঞ্চিত৷ আসলে আপনারা গাছে উঠিয়ে দিয়ে মই টান দেন৷ শতশত শ্রোতার মতামতের ভিত্তিতে উক্ত বক্তব্য৷ নাম ঠিকানা লেখা নেই৷

উত্তরঃ বন্ধু , আপনাকে বলছি - প্রথমত, মিডিয়ম ওয়েভে তেমন ভালো শোনা না গেলেও মোটামুটি বোঝা যাচ্ছে,একথাই শ্রোতারা আজকাল লিখছেন আমাদের কাছে৷

দ্বিতীয়ত, এরই মধ্যে অনেকেই মোবাইল পেয়ে সেই মোবাইলে আমাদের অনুষ্ঠান শুনছেন এবং ওয়েবসাইট দেখে এসএমএসও পাঠাচ্ছেন৷ এই মুহূর্তে দু’একজনের নাম বলা যেতে পারে যেমন, আবদুল কুদ্দুস মাষ্টার, শেখ জিয়াউর রহমান, শাহাদাত হোসেন আরো অনেকে৷

তাছাড়া আমাদের ওয়েবসাইট এবং ফেসবুকে প্রতিদিনই ক্লিক করছেন অসংখ্য শ্রোতাবন্ধু৷

এবার নিশ্চয়ই বুঝতে পাচ্ছেন, ভাই বা বোন যেই হোন না কেন যে, আপনার কথা ঠিক নয়৷