1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

আওয়ামী লীগের সাবেক দুই প্রতিমন্ত্রীর বিরুদ্ধে মামলা

বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকারের গত মেয়াদের দু’জন প্রতিমন্ত্রী এবং বর্তমান একজন সাংসদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন৷ জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগে তাঁদের বিরুদ্ধে এই মামলা দায়ের করা হয় বৃহস্পতিবার৷

বৃহস্পতিবার বিকেলে রমনা থানায় পৃথক তিনটি মামলা করা হয়৷ মামলার আসামিরা হলেন: সাবেক গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী আব্দুল মান্নান খান, সাবেক পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী মাহবুবুর রহমান এমপি ও কক্সবাজারের সংসদ সদস্য আব্দুর রহমান বদি৷

দুদক-এর উপ-পরিচালক শেখ নাসিরউদ্দিন সাবেক প্রতিমন্ত্রী মান্নানের বিরুদ্ধে, উপ-পরিচালক আবদুস সোবহান সাবেক প্রতিমন্ত্রী মাহবুবুরের বিরুদ্ধে এবং উপ-পরিচালক খায়রুল হুদা সাংসদ বদির বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন৷ দুদক-এর উপ-পরিচালক ও জনসংযোগ কর্মকর্তা প্রণব কুমার ভট্টাচার্য জানান, বৃহস্পতিবার কমিশনের নিয়মিত বৈঠকে অনুমোদন দেয়ার পর বিকেলে রমনা থানায় এ সব মামলা দায়ের হয়৷


অস্বাভাবিক সম্পদ বৃদ্ধির অভিযোগে দশম জাতীয় সংসদের নির্বাচনি হলফনামাকে ভিত্তি করে গত ২২শে জানুয়ারি কমিশনের এক বৈঠকে গত সরকারের সাত মন্ত্রী-এমপির সম্পদ অনুসন্ধানের সিদ্ধান্ত নেয় দুদক৷ আনুষ্ঠানিক অনুসন্ধান শুরুর প্রায় আট মাস পর তিনজনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হলো৷

দুদক-এর তদন্তে থাকা বাকি চারজন হলেন – মহাজোট সরকারের সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী আ ফ ম রুহুল হক, ঢাকার সংসদ সদস্য আসলামুল হক, রাজশাহীর সংসদ সদস্য এনামুল হক এবং সাতক্ষীরার সংসদ সদস্য এম এ জব্বার৷ রুহুল হকের সম্পদ অনুসন্ধান করছেন দুদক-এর উপ-পরিচালক মির্জা জাহিদুল আলম আলম, সংসদ সদস্য আসলামুল হকের সম্পদ অনুসন্ধান করছেন উপ-পরিচালক শেখ ফয়েজ আলম৷ উপ-পরিচালক সৈয়দ তাহসীনুল হক সংসদ সদস্য এনামুল হক এবং উপ-পরিচালক মাহমুদুর রহমান সংসদ সদস্য আব্দুল জব্বারের সম্পদ অনুসন্ধানের দায়িত্ব পালন করছেন৷

দুদক কমিশনার নাসিরউদ্দিন আহমেদ জানান, তারা প্রাথমিক অনুসন্ধানে সাতজনেরই অবৈধ সম্পদ অর্জনের তথ্য পেয়েছেন৷ তিনজনের বিরুদ্ধে মামলা হলো৷ বাকি চারজনের বিরুদ্ধে তদন্ত চলছে৷ মামলার উপযোগী তথ্য-প্রমাণ পাওয়া গেলে তাঁদের বিরুদ্ধেও মামলা হবে বলে জানান তিনি৷

সাবেক পূর্ত প্রতিমন্ত্রী মান্নান খান দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য সালমা ইসলামের কাছে পরাজিত হন৷ বাকি সবাই বর্তমান সংসদে প্রতিনিধিত্ব করছেন৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়