1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

আইভরি কোস্ট একটা চূড়ান্ত সমাধানের দিকে এগোচ্ছে

নির্বাচন জয়ী প্রেসিডেন্ট আলাসান ওয়াতারা’র বাহিনী লোরঁ বাগবো’র বাংকারের উপর হানা দেবার মুখে৷ অন্তত ওয়াতারার মুখপাত্র আফুসি বাম্বা রয়টার্স সংবাদ সংস্থাকে তা’ই বলেছেন৷

default

আলাসান ওয়াতারা

সংবাদ সংস্থাগুলোর শেষ খবর অনুযায়ী ওয়াতারার বাহিনী বাগবো'র বাসভবনে প্রবেশ করেছে৷ এবং তার আগে যে প্রেসিডেন্টের প্রাসাদ এবং বাসভবনের গোটা এলাকা জুড়ে যুদ্ধ চলেছে, স্থানীয় বাসিন্দারাই সে'কথা জানিয়েছেন৷ ওয়াতারার মুখপাত্র আফুসি বাম্বা রয়টার্সকে যা বলেছেন, তা' হল এই: ‘‘ওরা'' - মানে ওয়াতারা বাহিনী - ‘‘এখনও বাগবো'কে হস্তগত করেনি, কিন্তু করতে চলেছে৷'' এর সঙ্গে প্রত্যক্ষদর্শীদের বিবরণ যোগ করা যায়: তারা দেখেছে, ওয়াতারার এফআরসিআই যোদ্ধারা পিক-আপ ভ্যান এবং জিপে করে বাগবোর বাসভবনের দিকে যাচ্ছে৷ পরে স্বয়ংক্রিয় বন্দুকের আওয়াজ এবং ভারী গোলাগুলির শব্দ শোনা গেছে৷

Elfenbeinküste Praesident Laurent Gbagbo

লোরঁ বাগবো

ওয়াতারা বাহিনী আবিজানে ঢুকল জাতিসংঘ এবং ফ্রান্সের হেলিকপ্টার থেকে পরিকল্পিত বিমান হানার কল্যাণে৷ ওদিকে ঐ ফ্রান্সই আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে বাগবো'কে ক্ষমতা এবং দেশত্যাগে রাজি করানোর চেষ্টা করছিল৷ কিন্তু ফরাসি সরকারের এক সূত্র বলেছেন যে, বাগবো তাঁর বিদায় নেওয়ার ব্যাপারে বিশেষ আন্তরিকতা দেখাননি৷ বুধবার সকালেও তিনি ক্ষমতার উপর দাবি ছাড়ার ব্যাপারে একটি দলিলে স্বাক্ষর করতে অস্বীকার করেছেন, জাতিসংঘ এবং ফ্রান্স ঐ দলিলের পিছনে থাকা সত্ত্বেও৷ দলিলটি মঙ্গলবার বাগবো'কে পাঠানো হয়৷ বুধবার বাগবোর মুখপাত্র আহুয়া ডন মেলো রয়টার্সকে বলেছেন, জাতিসংঘ এবং ফ্রান্সের প্রস্তাবের কোনো বৈধ, আইনগত ভিত্তি নেই৷ আর বাগবো তো আগেই জানিয়েছিলেন যে, তিনি আত্মসমর্পণের কথা ভাবছেন না৷

আজ বুধবার তিনি ফ্রান্সের আরএফআই রেডিও'কে টেলিফোনে যা বলেছেন, তার অর্থ দাঁড়ায়, সোমবার ফরাসি এবং জাতিসংঘের বিমান হানায় তাঁর অস্ত্রশস্ত্র বিনষ্ট হবার পরই তিনি যুদ্ধবিরতির ডাক দেন৷ অপরদিকে তাঁর শহীদ হবার কিছুমাত্র ইচ্ছা নেই৷ এবং এখনও তিনি ওয়াতারার সঙ্গে সরাসরি আলাপ-আলোচনার কথা বলছেন৷

যা'তে ওয়াতারা স্বভাবতই রাজি নন৷ তবে ওয়াতারার বাহিনীকে নাকি নির্দেশ দেওয়া হয়েছে, তারা যেন বাগবোর প্রাণনাশ না করে৷ এটা ওয়াতারার নিজের নির্দেশ৷ তিনি নাকি বাগবোর বিচারের ব্যবস্থা করতে চান৷ আর ফরাসি পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ্যালাঁ জুপে বলেছেন, বাগবোর সাথে শুধু একটি ব্যাপারেই আলোচনা করা চলে: সেটি হল তার বিদায়৷

প্রতিবেদন: অরুণ শঙ্কর চৌধুরী

সম্পাদনা: সাগর সরওয়ার

নির্বাচিত প্রতিবেদন