1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

অ্যাশেজ সিরিজে সমতা আনার পথে অস্ট্রেলিয়া

অবশেষে অ্যাশেজ সিরিজে বোধহয় ফিরে আসছে অস্ট্রেলিয়া৷ কারণ ১-০তে পিছিয়ে থাকা অস্ট্রেলিয়া তৃতীয় টেস্টটি দৃশ্যত জেতার পথে রয়েছে৷ অবশ্য ইংল্যান্ডের পরের দিকের ব্যাটসম্যানরা যদি অস্বাভাবিক কিছু করে তাহলে অন্য কথা৷

default

অ্যাশেজের একটি খেলা (ফাইল ছবি)

খেলার বর্তমান যে অবস্থা তাতে ইংল্যান্ডকে জয়ের জন্য টেস্টের শেষ দুদিনে করতে হবে ৩১০ রান৷ হাতে আছে পাঁচ উইকেট৷

জয়ের জন্য চতুর্থ ইনিংসে ইংল্যান্ডের দরকার ৩৯১ রান৷ এই লক্ষ্যে খেলতে নেমে মাত্র ৮১ রানেই ইংল্যান্ডের প্রথম পাঁচ উইকেট পড়ে যায়৷ ইতিহাস বলছে, এর আগে চতুর্থ ইনিংসে সর্বোচ্চ ৩৩২ রান তুলে জয় পেয়েছিল ইংল্যান্ড৷ সেটা ১৯২৮ সালের কথা৷

এসব কিছু বিবেচনায় অস্ট্রেলিয়ার বোলার পিটার সিডল মনে করছেন ম্যাচ শেষ হয়ে গেছে৷ কিন্তু ইংল্যান্ডের পেস বোলার ক্রিস ট্রেমলেট সেটা মানতে রাজি নন৷ তিনি বলছেন ইংল্যান্ডের এখনো ভাল ভাল ব্যাটসম্যান রয়েছে যাদের দিয়ে ম্যাচ জেতা সম্ভব৷

তাহলে কী পার্থের ওয়াকা স্টেডিয়ামে কোনো ইতিহাস লেখা হতে যাচ্ছে? রবিবারই সেটা বোঝা যাবে৷

এদিকে ক্যারিয়ারে ডাবল সেঞ্চুরি না থাকার দু:খটা মুছে ফেললেন দক্ষিণ আফ্রিকার জ্যাক ক্যালিস৷ টেস্টে এগারো হাজারের ওপর রান করা একজন ব্যাটসম্যান কখনো ডাবল সেঞ্চুরি করেননি, সেটা নিয়ে হতাশ ছিলেন অনেক ক্রিকেট ভক্তও৷ তবে আজ সেই হতাশা কেটে গেল৷ কারণ ক্যালিস পেলেন ডাবল সেঞ্চুরির দেখা৷ ভারতের বিরুদ্ধে আজ প্রথম টেস্টের তৃতীয় দিনে প্রথম ইনিংস শেষে ২০১ রানে অপরাজিত ছিলেন ক্যালিস৷ ফলে প্রথম ইনিংসে দক্ষিণ আফ্রিকার সংগ্রহ দাঁড়ায় ৪ উইকেটে ৬২০৷ অর্থাৎ লিড ৪৮৪ রানের৷ কারণ প্রথম ইনিংসে ভারতের সংগ্রহ ছিল মাত্র ১৩৬৷

দক্ষিণ আফ্রিকার এই বিশাল সংগ্রহে আরও দুজনের অবদান রয়েছে৷ এর মধ্যে একজন হাশিম আমলা৷ তিনি করেছেন ১৪০ রান৷ আর অন্যজন এবি ডি ভিলিয়ার্স৷ তিনি মাত্র ১৪৯ বলে করেন ১২৯ রান৷

এখন ভারত ব্যাট করছে৷ শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত তাদের সংগ্রহ ছিল ২২ ওভারে ১২৩৷ উইকেটে রয়েছেন উদ্বোধনী দুই ব্যাটসম্যান বীরেন্দ্র শেহবাগ ও গৌতম গম্ভীর৷

প্রতিবেদন: জাহিদুল হক

সম্পাদনা: অরুণ শঙ্কর চৌধুরী

সংশ্লিষ্ট বিষয়