‘অ্যামেরিকার উপর অভূতপূর্ব কষ্ট আনবে উত্তর কোরিয়া′ | বিশ্ব | DW | 13.09.2017
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

উত্তর কোরিয়া

‘অ্যামেরিকার উপর অভূতপূর্ব কষ্ট আনবে উত্তর কোরিয়া'

নতুন নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও অবিচল উত্তর কোরিয়া৷ পরমাণু ও ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচির গতি আরও বাড়িয়ে ওয়াশিংটনকে হুমকি দিচ্ছে সে দেশ৷ নিষেধাজ্ঞা কার্যকর করতে চীনের উপর চাপ বাড়াচ্ছে অ্যামেরিকা৷

জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের নতুন নিষেধাজ্ঞার মুখেও উত্তর কোরিয়া নতি স্বীকার করতে নারাজ৷ ১৫টি সদস্য দেশ একযোগে সেই পদক্ষেপের পক্ষে ভোট দিলেও তাদের রোষের একমাত্র লক্ষ্য মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র৷ মার্কিন আগ্রাসন রুখতে সে দেশ দ্বিগুণ তৎপর হয়ে উঠবে বলে জানিয়েছে৷ জাতিসংঘের প্রস্তাব দেশ হিসেবে আত্মরক্ষার অধিকার খর্ব করছে এবং বড় আকারের অর্থনৈতিক অবরোধের মাধ্যমে মানুষ ও রাষ্ট্রের শ্বাসপ্রশ্বাস বন্ধ করার চেষ্টা চলছে বলে বিবৃতি দিয়েছে উত্তর কোরিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়৷ জাতিসংঘে উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রদূত ওয়াশিংটনকে হুমকি দিয়ে বলেছেন, ভবিষ্যৎ পদক্ষেপের মাধ্যমে তাঁর দেশ অ্যামেরিকার উপর অভূতপূর্ব কষ্ট আনতে চলেছে৷

জাতিসংঘের নিষেধাজ্ঞা নিয়ে সন্তুষ্ট নন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প৷ চীন ও রাশিয়ার চাপে অ্যামেরিকার প্রস্তাবের খসড়ায় শেষ পর্যন্ত কাটছাঁট করতে হয়েছে বলে এ যাত্রায় উত্তর কোরিয়ার উপর যথেষ্ট চাপ সৃষ্টি করা গেল না বলে মনে করেন তিনি৷ তাই সর্বশেষ নিষেধাজ্ঞাকে ছোট পদক্ষেপ হিসেবে বর্ণনা করেছেন তিনি৷ তবে সর্বসম্মতিক্রমে এই প্রস্তাব অনুমোদন করা সম্ভব হয়েছে বলে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন তিনি৷

উত্তর কোরিয়ার উপর চাপ বজায় রাখতে চীনকে সতর্ক করে দিয়েছে মার্কিন প্রশাসন৷ বাণিজ্যমন্ত্রী স্টিভ মেনুশিন বলেছেন, চীন যদি নিষেধাজ্ঞা পুরোপুরি কার্যকর না করে, সে ক্ষেত্রে ওয়াশিংটন সে দেশের উপর পরোক্ষ নিষেধাজ্ঞা চাপাবে৷ উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে সম্পর্ক রয়েছে, এমন চীনা ব্যাংক ও শিল্প প্রতিষ্ঠানগুলির উপর নিষেধাজ্ঞা প্রস্তুত রয়েছে বলে মার্কিন প্রশাসনের সূত্রে জানানো হয়েছে৷

সর্বশেষ পরমাণু পরীক্ষার পর মাউন্ট মান্টাপ এলাকায় উত্তর কোরিয়ার ‘টেস্ট সাইট'-এ যথেষ্ট ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে জানিয়েছে ওয়াশিংটনভিত্তিক গোষ্ঠী ‘থার্টিএইট নর্থ প্রজেক্ট'৷ তবে তাদের সূত্র অনুযায়ী জায়গাটিকে আরও পরীক্ষার জন্য প্রস্তুত করতে জোরালো তৎপরতা চলছে৷

এমন প্রেক্ষাপটে সামরিক সংঘাতের আশঙ্কা নিয়ে জল্পনাকল্পনা চলছে৷ উত্তর কোরিয়া পরমাণু ও ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা কর্মসূচি বন্ধ করার বদলে আরও দ্রুত গতিতে তাদের লক্ষ্য পূরণ করতে চায়৷ দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্রে পরমাণু অস্ত্র বসিয়ে মার্কিন ভূখণ্ডে আঘাত করার ক্ষমতা অর্জন করতে আরও প্রায় এক বছর সময় লাগবে বলে বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন৷

এসবি/এসিবি (রয়টার্স, এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়