1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

জার্মানি ইউরোপ

অ্যামেরিকার উন্নতিতে খুশি ইউরোপের বাজার

অ্যামেরিকার অর্থনীতি কর্মসংস্থান সহ বিভিন্ন সূচকে বেশ ভালো ফল করায় ইউরোপ সহ গোটা বিশ্বের পুঁজিবাজারে স্বস্তির নিঃশ্বাস পড়েছে৷ তবে ইউরোপের নিজস্ব অর্থনীতি নিয়ে দুশ্চিন্তা কিছুতেই কাটছে না৷

গত সপ্তাহে ইউরোপীয় কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ঘোষণায় কিছুটা হতাশ হয়েছিল ইউরোপের পুঁজিবাজার৷ কিন্তু মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে কর্মসংস্থান বেড়ে চলায় সোমবার বাজার আবার চাঙ্গা হয়ে উঠেছে৷ এমনকি ইউরো-র বিনিময় মূল্যও কিছুটা বেড়ে গেছে৷ অ্যামেরিকার অর্থনীতি সম্পর্কে সুখবরের ফলে সবচেয়ে বেশি উপকৃত হচ্ছে ইউরোপের রপ্তানিকারক কোম্পানিগুলি৷ তারা আরও বেশি অর্ডারের আশা করছে৷ তবে ইউরোপের নিজস্ব চাহিদা না বাড়ার ফলে ইউরো এলাকা মাথা তুলে দাঁড়াতে পারছে না৷ সেপ্টেম্বর মাসে ব্যবসায়িক প্রবৃদ্ধির সূচক সবচেয়ে কম মাত্রা ছুঁয়েছে৷ অর্থাৎ শুধু অন্যান্য দেশে রপ্তানির উপর নির্ভর করে ইউরোপ ঘর সামলাতে পারবে না৷

EZB billiges Geld Symbolbild

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে কর্মসংস্থান বেড়ে চলায় আবার চাঙ্গা হয়ে উঠেছে ইউরোপের পুঁজিবাজার

সংস্কার, ব্যয় সংকোচের ক্ষেত্রে কিছু অগ্রগতি ঘটছে, যার ফল এখনো হাতেনাতে পাওয়া যাচ্ছে না৷ তবে বাকি সব সমস্যার মোকাবিলায় কমবেশি সাফল্য পাওয়া গেলেও ইউরোপের অনেক দেশে চরম বেকারত্ব দূর করা সম্ভব হচ্ছে না৷ তাই চলতি সপ্তাহে শুধু এই সমস্যার সমাধানের লক্ষ্যেই ইটালির মিলান শহরে মিলিত হচ্ছেন ইউরোপীয় শীর্ষ নেতারা৷ সঙ্গে থাকবেন শ্রমমন্ত্রীরাও৷ প্রস্তাবিত পদক্ষেপগুলির মধ্যে রয়েছে ‘ইয়ুথ গ্যারেন্টি' নামের এক কর্মসূচি, যার আওতায় তরুণ প্রজন্মের জন্য চাকরি বা প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করার উদ্যোগ নেয়া হবে৷ অর্থাৎ শিক্ষা শেষ করার পরই তারা ৬০০ কোটি ইউরো-র এই তহবিল থেকে উপকৃত হবেন৷ আপাতত ফ্রান্স ও ইটালিতেই এই কর্মসূচি চালু করা সম্ভব হয়েছে৷ দ্বিতীয় বড় সমস্যা ফ্রান্স ও ইটালির মতো দেশের অর্থনৈতিক দুর্বলতা৷ ইউরোপীয় ইউনিয়নের দ্বিতীয় গুরুত্বপূর্ণ অর্থনৈতিক শক্তি ফ্রান্সের বাজেট নিয়ে সংকট দেখা যাচ্ছে৷ সে দেশের প্রস্তাবিত বাজেটে ঘাটতির মাত্রা প্রায় ৪.৩ শতাংশ – যা ৩ শতাংশের সীমার অনেক উপরে৷

Euro-Münzen

‘ইয়ুথ গ্যারেন্টি' নামের এক কর্মসূচির আওতায় ইউরোপের তরুণ প্রজন্মের জন্য চাকরি বা প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করার উদ্যোগ নেয়া হবে

আগামী ১৫ই অক্টোবরের মধ্যে ফ্রান্স ইউরোপীয় কমিশানের কাছে সংশোধিত বাজেট পেশ না করলে গোটা কাঠামো নিয়ে প্রশ্ন উঠতে পারে৷ ফ্রান্স ২০১৭ পর্যন্ত এই নিয়মের ক্ষেত্রে ছাড় চাইছে৷ এমন ব্যতিক্রমের কোনো অবকাশ অবশ্য নেই৷

এদিকে স্পেন তার সংকট সামলাতে বাড়তি ব্যয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছে৷ দেশের অনেক পৌরসভার ঋণের মাত্রা কমাতে এই অর্থ ব্যয় করা হবে৷ এককালীন অর্থ দিয়ে তাদেরও অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির পথে ফিরিয়ে আনাই এর উদ্দেশ্য৷ ইটালির সরকার পরবর্তী সংস্কারের আগে আস্থা ভোটের পথ বেছে নিয়েছে৷ ব্যাপক কর্মী ছাঁটাইয়ের মাধ্যমে গোটা কাঠামোকে প্রতিযোগিতামূলক করে তুলতে চান তিনি৷ গ্রিসের সরকারও শুক্রবার আস্থা ভোটের মুখোমুখি হচ্ছে৷ সরকারের পতন ঘটলে বেলআউট কর্মসূচি থেকে বেরিয়ে আসার প্রচেষ্টা বড় ধাক্কা খেতে পারে৷

এসবি/ডিজি (রয়টার্স, ডিপিএ, এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন