1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

অস্ট্রেলিয়ার দুই ওপেনারের বিরুদ্ধে ‘স্পট ফিক্সিং’ এর অভিযোগ

বিশ্বকাপ ক্রিকেটের অস্ট্রেলিয়া বনাম জিম্বাবোয়ের খেলায় ‘স্পট ফিক্সিং’ হয়েছে এমন অভিযোগের তদন্ত শুরু করেছে ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল বা আইসিসি৷ অস্ট্রেলিয়ার দুই ওপেনারের বিরুদ্ধেই এই অভিযোগ৷

default

অস্ট্রেলিয়া-জিম্বাবোয়ে ম্যাচের একটি মুহুর্ত

আইসিসি বিশ্বকাপ ২০১১-তে ম্যাচ কারসাজির এই প্রথম অভিযোগটি এসেছে ভারতের আহমেদাবাদে অনুষ্ঠিত অস্ট্রেলিয়া বনাম জিম্বাবোয়ের খেলায়৷ অস্ট্রেলিয়ার দুই ওপেনার শেন ওয়ার্টসন এবং ব্রাড হাডিন ব্যাট হাতে মাঠে নামেন৷ ১১ ওভারে এই দুই খেলোয়াড় রান করেন মাত্র ২৮৷ আর ১৫ ওভারে ৫৩৷ প্রথম ১০ ওভারে তাঁরা খুবই ধীরে খেলেছেন৷ এতোটা ধীরে খেলার কারণেই সন্দেহ সৃষ্টি হয়েছে আইসিসির অ্যান্ট্রি করাপসন এন্ড সিকিউরিটি ইউনিটের৷ ফলে তারা নেমে পড়েছেন এর তত্ত্বতালাশে৷ এই খেলায় অবশ্য জয়ী হয় অস্ট্রেলিয়া৷

অস্ট্রেলিয়ার কোচ টিম নিলসন স্পট ফিক্সিং এর এই অভিযোগ মানতে মোটেই রাজি নন৷ তিনি বলেছেন, ‘ওয়ার্টসন এবং হাডিন খেলার জন্য সেই সময়ে যা প্রয়োজন ছিল তাই করেছে৷' তাঁর দাবি, সামগ্রিক ম্যাচে ভালো খেলেছে তার ছেলেরা৷ তিনি বলেন, ‘ঐ ম্যাচে জিম্বাবোয়ে প্রথম দিকে আক্রমণ চালিয়েছে স্পিনারদের দিয়ে৷ আর এই স্পিনারদের মারমুখী বলে যে কোন সময় যে কোন কিছু ঘটে যেতে পারতো৷ তাই স্পিনারদের ওভারগুলোতে দেখে শুনে মাথা ঠান্ডা রেখে খেলেছেন ঐ দুই জন৷ তাদের ঐ খেলা দেখে মনে হতে পারে ধীরে খেলেছেন তাঁরা, আসলে তা নয়৷ সময়ের প্রয়োজনে তাঁরা নিজেদের যা খেলা দরকার সেটিই খেলেছেন৷ আমি মনে করি এটাই ছিল সঠিক সিদ্ধান্ত৷'

ইতিমধ্যে পাকিস্তানের সাবেক টেস্ট ক্যাপ্টেন রশিদ লতিফ এই বলে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন যে বাজি ধরে যারা তাদের জন্য বিশ্বকাপের খেলায়, বিশেষ করে গ্রুপ ভিত্তিক খেলাগুলোয় এক ধরণের সুবিধাই সৃষ্টি হয়েছে৷

স্পট ফিক্সিং এর মানে এই যে পুরো খেলায় নয়, খেলার কিছু সময় বা ওভারের চেহারা পাল্টে দেয়া৷ আর তা অবশ্যই হয় এই জুয়াড়িদের সঙ্গে যোগসাজশে, অর্থের বিনিময়ে৷ এর আগে পাকিস্তানের খেলোয়াড় মোহাম্মদ আসিফ এবং মোহাম্মদ আমেরের বিরুদ্ধে এ ধরণের খেলার অভিযোগ প্রমাণিত হয় তাদের ইংল্যান্ড সফরকালে৷

প্রতিবেদন: সাগর সরওয়ার

সম্পাদনা: আব্দুল্লাহ আল-ফারূক