1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

অস্কারে সেরা ‘দ্য হার্ট লকার’

এক যোদ্ধার গল্প৷ বিধ্বংসী সব পেতে রাখা বোমা নিষ্ক্রিয় করা তাঁর কাজ৷ কখনো গাড়ির বনেটে কখনো রাস্তার কংক্রিটের নীচে আবার কখনো বা খোদ আত্মঘাতীর শরীরে৷ সবখানেই বোমা৷ কাহিনীর কেন্দ্র ইরাক৷ পরিচালনায় ক্যাথরিন বিগেলো৷

default

ইরাক যুদ্ধের এই বাস্তব কাহিনীই জিতে নিল ছয় ছয়টি অস্কার৷ আর তাই রবিবার রাতে অস্কারের ৮২তম আসরে জয়জয়কার হার্ট লকার-এর৷ এমনকি শুরুতে শক্ত প্রতিদ্বন্দ্বী ভাবা আভাতার খুব একটা পাত্তা পায়নি হার্ট লকারের কাছে৷ অথচ নির্মাণ খরচের দিক থেকে আভাতার-এর কাছে পিঠে নেই হার্ট লকার৷ যদিও দুটোরই নির্মাতা কিন্তু প্রাক্তন স্বামী-স্ত্রী৷

Szenenbild aus dem Film Tödliches Kommando

ছয়টি অস্কার ঘরে তুললো হার্ট লকার

আরেকটি বিষয় না বললেই নয়, আর সেটা হচ্ছে অস্কার দৌড়ে নারীর জয়৷ হার্ট লকার-এর জন্যে সেরা পরিচালকের পুরস্কারটি পেয়েছেন ক্যাথরিন বিগেলো৷ অস্কারের ইতিহাসে তিনিই প্রথম নারী যে কিনা জিতলেন এই খেতাব৷ আর তাই উচ্ছ্বসিত বিগেলো অস্কারের মঞ্চে জানালেন, ‘‘এটা আমার জীবনের সবচেয়ে স্মরনীয় মুহুর্ত৷ আর কোনভাবে এটাকে বোঝানোর সাধ্য নেই আমার৷'' অবশ্য একইসঙ্গে যাদের নিয়ে এই ছবি সেই, যোদ্ধারের প্রতি সম্মান জানাতে ভোলেননি বিগেলো৷ জানালেন, ‘‘আমি এই সম্মাননা সেই সব নারী এবং পুরষ সেনাদের জন্য উৎসর্গ করতে চাই যারা জীবন বাজী রেখে যুদ্ধ করছে ইরাক, আফগানিস্তান সহ বিশ্বের নানা প্রান্তে৷''

Oscarverleihung 2010 Galerie James Cameron und Kathryn Bigelow

অস্কারের রাতে প্রাক্তন স্ত্রীকে এভাবেই অভিনন্দন জানালেন জেমস ক্যামেরন

ও হ্যাঁ, গত কয়েক সপ্তাহ ধরে আলোচনার শীর্ষে থাকা আভাতার অস্কার প্রতিবেদনে জায়গা পাচ্ছে খানিকটা নীচে৷ কারণও স্পষ্ট, অস্কারে আভাতার জিতেছে মাত্র তিনটি পদক, তাও বেশিরভাগই ছবিটির কারিগরী এবং প্রযুক্তিগত উৎকর্ষের জন্য৷ চলুন এবার চোখ বোলাই অস্কার জয়ী পুরো তালিকার দিকে :

Filmszene Avatar

তিনটি নিয়েই খুশি আভাতার

সেরা ছবি: দ্য হার্ট লকার

সেরা পরিচালক: ক্যাথরিন বিগেলো (দ্য হার্ট লকার)

সেরা অভিনেতা: জেফ ব্রিগেজ (ক্রেজি হার্ট)

সেরা অভিনেত্রী: সান্দ্রা বুলক (দ্য ব্লাইন্ড সাইড)

সেরা সহঅভিনেত্রী: মোনিক

সেরা সহঅভিনেতা: ক্রিস্টফ ভাল্জ (ইনগ্লোরিয়াস বাস্টার্ডস)

সেরা বিদেশী ভাষার ছবি: দ্যা সিক্রেট ইন দেয়ার আইস (আর্জেন্টিনা)

আসল চিত্রনাট্য: দ্য হার্ট লকার

অভিযোজিত চিত্রনাট্য: গিওফ্রে ফেচার

এনিমেটেড ফিচার: আপ

এনিমেটেড শর্ট ফিল্ম: লোগোরামা

চিত্র পরিচালনা: রিক কার্টার এবং রবার্ট স্ট্রোমবের্গ (আভাতার)

কস্টিউম ডিজাইন: সেন্ডি পাওয়েল (দ্য ইয়ং ভিক্টোরিয়া)

মেকআপ: বার্নি বর্মন, মিন্ডি হল এবং জোল হার্ল (স্টার ট্রেক)

সেনিমেটোগ্রাফি: মাওরো ফিওরি (আভাতার)

লাইভ অ্যাকশন শর্ট ফিল্ম: দ্য নিউ ট্যানেন্টস

ডকুমেন্টারি ফিচার: দ্য কেভ

ভিজ্যুয়াল এফেক্টস: জো লেটারি, স্টেফান রোজেনবম, রিচার্ড বেনাহাম এবং এন্ড্রু আর জোনস (আভাতার)

সাউন্ড এডিটিং: পল এন.জে. অটোসন (দ্য হার্ট লকার)

সাউন্ড মিক্সিং: পল এন.জে. অটোসন (দ্য হার্ট লকার)

ফিল্ম এডিটিং: বব মোরাসকি এবং ক্রিস ইনস (দ্য হার্ট লকার)

অরিজিনাল স্কোর: মাইকেল গিচিনো (আপ)

অরিজিনাল গান: দ্য ওয়েরি কিন্ড এবং ক্রিজি হার্ট

প্রতিবেদক: আরাফাতুল ইসলাম

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়