অস্কারে গুরুত্ব পেল যেসব সামাজিক সমস্যা | বিশ্ব | DW | 29.02.2016
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

অস্কারে গুরুত্ব পেল যেসব সামাজিক সমস্যা

এতক্ষণে সবাই জেনে গেছেন কে কে অস্কার পেয়েছেন৷ এবারের অস্কার অনুষ্ঠান এবং অস্কার পাওয়া ছবিগুলোতে কয়েকটি সামাজিক সমস্যার কথা উঠে এসেছে৷

জানুয়ারিতে যখন অস্কারের মনোননয়ন ঘোষণা করা হয় তখন জানা যায় যে, টানা দ্বিতীয়বারের মতো কোনো কৃষ্ণাঙ্গ অভিনেতা-অভিনেত্রীর নাম সেই তালিকায় নেই৷ এর প্রতিবাদ শুরু হয় টুইটারে৷ হ্যাশট্যাগ ‘অস্কার্সসোহোয়াইট' ব্যবহার করে সারা দুনিয়ার টুইটার ব্যবহারকারী প্রতিবাদ জানাতে থাকেন৷ একসময় বিষয়টি এতই আলোচিত হয়ে ওঠে যে, বেশ কয়েকজন তারকা অস্কার অনুষ্ঠান বয়কটের ঘোষণা দেন৷

ভিডিও দেখুন 03:26
এখন লাইভ
03:26 মিনিট

অস্কার অনুষ্ঠানের শুরুতে উপস্থাপক ক্রিস রক বর্ণবাদের অভিযোগের বিষয়ে একটি হাস্যরসপূর্ণ বক্তব্য রাখেন৷

গির্জায় শিশুদের যৌন নিপীড়ন

অস্কারের সেরা ছবি মনোনীত হয়েছে ‘স্পটলাইট'৷ যুক্তরাষ্ট্রের বস্টনের খ্রিষ্টান যাজকদের গির্জায় শিশুদের উপর যৌন নিপীড়নের কাহিনি ধামাচাপা দেয়ার ঘটনা উন্মোচন নিয়ে ফিল্মটি তৈরি হয়েছে৷ অস্কার পাওয়ার পর দেয়া বক্তব্যে প্রযোজক মাইকেল সুগার আশা করেন, এই সাফল্য সমস্যাটিকে ভ্যাটিকান পর্যন্ত পৌঁছে দেবে৷ পোপ ফ্রান্সিসের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, শিশুদের রক্ষা ও বিশ্বাস ফিরিয়ে আনার এখনই সময়৷

ক্যাম্পাসে ধর্ষণ

অস্কার অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন৷ লেডি গাগার সঙ্গে মিলে তিনি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ধর্ষণ ঘটনার প্রতিবাদ সম্পর্কিত এক কর্মসূচিতে জড়িত আছেন৷ এই বিষয়ে লেডি গাগার ‘টিল ইট হ্যাপেনস টু ইউ' শীর্ষক একটি গান রয়েছে৷ অস্কার অনুষ্ঠানে লেডি গাগা গানটি পরিবেশন করেন৷ এই সময় ধর্ষণের শিকার কয়েকজন তাঁর সঙ্গে যোগ দেন৷

জলবায়ু পরিবর্তন

১৯৯৪ সাল থেকে মোট ছয়বার অস্কার মনোনয়ন পেয়েছিলেন লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিও৷ এইবার তিনি প্রথমবারের মতো অস্কার জিতলেন৷ পুরস্কার নেয়ার পর বক্তব্যে ডিক্যাপ্রিও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ে সবাইকে সচেতন হওয়ার আহ্বান জানান৷

সমকামী অধিকার

‘বেস্ট অরিজিনাল সং' ক্যাটাগরিতে সেরা হন ব্রিটিশ সংগীত শিল্পী স্যাম স্মিথ, যিনি একজন সমকামী৷ তাঁর এই সাফল্য তিনি সমকামী, উভকামী ও হিজড়াদের উদ্দেশ্যে উৎসর্গ করেন৷

জেডএইচ/ডিজি (ডিপিএ)

নির্বাচিত প্রতিবেদন