1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

অস্কারে কিস্তি মাৎ করলো ‘দ্য কিংস স্পিচ’

২৭শে ফেব্রুয়ারির, আলো ঝলমলে এক অনুষ্ঠানে অ্যামেরিকার লস এঞ্জেলেসে হয়ে গেল আন্তর্জাতিক অ্যাকাডেমি অ্যাওয়ার্ড পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান ‘অস্কার’৷ এবছরও অস্কারে ছিল সেরা ছায়াছবি, পরিচালক, অভিনেতা ও অভিনেত্রীর পুরস্কারটি৷

default

অস্কার'এর যাত্রা শুরু হয় ১৯২৯ সালের ১৬ই মে ছোটখাট এক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে৷ অথচ আজ এটি বিশ্বের সবচেয়ে জাঁকজমকপূর্ণ চলচ্চিত্র পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে পরিণত হয়েছে৷ প্রতি বছরের মত এবছরও চলচ্চিত্র জগতের ২৪টি বিভাগে সেরা কাজের জন্য দেয়া হল এ পুরস্কার৷ আর অবাক করার বিষয়, এবারের অস্কারের সেই আসরে ব্রিটিশ ‘লো-কি' ড্রামা বলে পরিচিত ছবি ‘দ্য কিংস স্পিচ'-এর প্রাপ্তি চলে গেল প্রত্যাশারও বাইরে৷ সেরা ছবি, সেরা অভিনেতা এবং সেরা নির্দেশনা – প্রথম তিন সেরার শিরোপাই ছিনিয়ে নিলো ‘তোতলা রাজার গল্প' নিয়ে তৈরি ব্রিটিশ এই ছবিটি৷

Oscars Filmpreis 2011

সেরা চার অভিনেতা অভিনেত্রী

এখানেই শেষ নয়৷ ‘দ্য কিংস স্পিচ'-এর ঝুলিতে এসে পড়ে সেরা চিত্রনাট্যের পুরস্কারটিও৷ বিশাল কোড্যাক থিয়েটার হলে জমজমাট এক পরিবেশে অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছিলেন আমন্ত্রিত অতিথি, মনোনীত অভিনেতা অভিনেত্রী ও চলচ্চিত্রনির্মাতারা৷ তোতলা রাজার এহেন ‘পারফরম্যান্স'এ তাঁরা সকলেই প্রায় লাফিয়ে ওঠে৷ এমনকি, ছবির নির্দেশক টম হুপার নিজেও বিস্মিত অস্কারে এতদূর সাফল্য পেয়ে৷

তবে ‘দ্য কিংস স্পিচ' আর ‘দ্য সোশ্যাল নেটওয়ার্ক' ঠিক কতগুলো পুরষ্কার পকেটে পোরে - তা নিয়ে চারদিকে প্রথম থেকেই জোরদার আলোচনা চলছিল৷ বোঝাই যাচ্ছিল যে, লস এঞ্জেলসে ঐ অস্কার রজনী ফুরিয়ে যাওয়ার পর এই দুটো ছবিকেই দেখা যাবে পাদপ্রদীপের আলোয়৷ শেষ পর্যন্ত অবশ্য সেরা নির্দেশক, এমনকি ‘দ্য কিংস স্পিচ'-এ রাজার ভূমিকায় কলিন ফার্থ জিতে নেন সেরা অভিনেতার অস্কার৷

পুরস্কার জেতার পর কলিন ফার্থ হাসতে হাসতে বলেন, ‘‘আমি কিন্তু প্রথমেই আপনাদের সব্বাইকে সাবধান করে দিচ্ছি৷ আমার পেটের ঠিক উপরের জায়গাটা কেমন যেন করছে৷ মনে হচ্ছে, আমার পেটের নাড়িভুঁড়িগুলো যেন নাচতে শুরু করেছে৷ আমার জন্য তারা যে খুব খুশি – তা ঠিকই টের পাচ্ছি৷ তাই এবার, তারা আমার পা পর্যন্ত পৌঁছনোর আগে আমার স্টেজ থেকে নেমে পড়াটাই বুদ্ধিমানের হবে৷''

Film The Social Network

সোশ্যাল নেটওয়ার্ক ছবিটা সুবিধা করতে পারলো না অস্কারে

তারপর আর কি ? ‘দ্য সোশ্যাল নেটওয়ার্ক' পিছিয়ে পড়তে থাকে ক্রমশই৷ শেষে সেরা ছবির অস্কারও চলে যায় তোতলা রাজার দিকেই৷ ফলে ফেসবুকের কাহিনী অস্কারে তেমন কিছু করতে পারে না৷

এছাড়া, ব্রিটেনের রাজ পরিবারের কাহিনী নিয়ে তোতলা রাজার ছবি ‘দ্য কিংস স্পিচ'-এর চিত্রনাট্যকার ডেভিড সেইডলার পান সেরা চিত্রনাট্যের পুরস্কার৷ ওদিকে, সোশ্যাল নেটওয়ার্কের সঙ্গীতের জন্য সেরা মৌলিক স্কোর-এর অস্কারে সম্মানিত হন অ্যারন সরকিন৷ আর ‘ব্ল্যাক সোয়ান' ছবিতে নায়িকার ভূমিকায় অভিনয় করা নাটালি পোর্টম্যান পান এ বছরের সেরা অভিনেত্রীর সম্মান৷

অস্কার পেয়ে নাটালি পোর্টম্যান উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে বলেন, ‘‘এ কাজটি, এ ছবিটি করার জন্য যে আমাকে বাছা হয়েছিল – তার জন্য আমি আজও নিজেকে ধন্য মনে করি৷ ছবিটি করে আমি সত্যিই আনন্দ পেয়েছি৷ আজ এখানে দাঁড়িয়ে আমি প্রথমেই আমার বাবা-মা'কে ধন্যবাদ জানাতে চাই, যাঁরা আজ এখানে উপস্থিত আছেন৷ তাঁদের আমি ধন্যবাদ জানাতে চাই আমাকে এ জীবন দেওয়ার জন্য, আমায় এতো অল্প বয়সে ছবিতে অভিনয় করতে দেওয়ার জন্য এবং প্রতিদিন একটু একটু করে আমাকে আরো ভালো একজন মানুষ হিসেবে গড়ে তোলার জন্য৷''

উল্লেখ্য, এ বছর সেরা বিদেশি ভাষার ছবির অস্কারটি লুফে নেয় ডেনমার্কের ছবি ‘ইন আ বেটার ওয়ার্ল্ড'৷ বলতেই হচ্ছে, জাঁকজমকের সেরা বিনোদন বলে পরিচিত অস্কারের এই আসরে এবার চোখ কাড়ে দুই তরুণ-তরুণীর অনুষ্ঠান পরিচালনা৷ টিভি সিরিয়ালের জনপ্রিয় হিরো ৩২ বছরের অভিনেতা জেমস ফ্রাঙ্কো আর ২৮ বছরের নায়িকা অ্যান হাথাওয়ে মঞ্চ মাতিয়েছেন তাঁদের প্রতিভা, গ্ল্যামার আর সৌন্দর্যের জৌলুসে৷

৮৩তম অস্কার অনুষ্ঠানটি সরাসরি সম্প্রচার করে অ্যামেরিকান ব্রডকাস্টিং কোম্পানি বা এবিসি টেলিভিশন৷

প্রতিবেদন: দেবারতি গুহ

সম্পাদনা: সাগর সরওয়ার