1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে আবদুর রহমান বয়াতী

‘একটি চাবি মাইরা, দিল ছাইড়া, জনম ভরে চলিতেছে; মন আমার দেহঘড়ি, সন্ধান করি, কোন মেস্তুরী বানাইয়াছে’– কোন কোন গান মানুষকে সারাজীবনের জন্য বানিয়ে রাখে শ্রেষ্ঠ৷ মানুষের মনের মধ্যে তার নাম লেখা হয়ে থাকে৷

default

মানুষের জন্য আব্দুর রহমান বয়াতীর গান

বলছিলাম বাংলাদেশের বাউল গানের জীবন্ত কিংবদন্তি প্রবীণ কণ্ঠশিল্পী আবদুর রহমান বয়াতীর কথা৷

১৯৩৯ সালে ঢাকার জন্মগ্রহণ করা আবদুর রহমান বয়াতী একাধারে অসংখ্য জনপ্রিয় লোকগানের শিল্পী, গীতিকার, সুরকার এবং সংগীত পরিচালক৷ তাঁর গানের মাধ্যমে সব সময়ই মাটি ও মানুষের কথা উঠে এসেছে৷ গান গেয়ে এক সময় দেশ-বিদেশও মাতিয়েছেন আবদুর রহমান বয়াতী৷ অনেকেরই হয়তো জানেন না যে, আমেরিকার সাবেক প্রেসিডেন্ট জর্জ বুশ সিনিয়র- এর আমন্ত্রণে হোয়াইট হাউসের এক জমকালো অনুষ্ঠানেও গান পরিবেশন করে ব্যাপক প্রশংসা কুড়িয়েছেন তিনি৷

কিন্তু সেই আবদুর রহমান বয়াতী এখন একদমই ভাল নেই৷ গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় পুরান ঢাকার দয়াগঞ্জের জাহাঙ্গীরনগর হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন৷ বুকে ব্যথা ও শ্বাসকষ্টে আক্রান্ত এই প্রখ্যাত শিল্পীকে হাসপাতালের চিকিৎসকরা বেশ কিছু শারীরিক পরীক্ষার পরামর্শ দিলেও অর্থাভাবে শিল্পীর পরিবার সেগুলো করাতে পারছেন না৷ গত ১৪ আগস্ট শনিবার সকালে এই বাউলশিল্পী বুকে প্রচণ্ড ব্যথা অনুভব করলে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়৷

আবদুর রহমান বয়াতীর ছেলে মোহাম্মদ আলম তাঁর বাবার সর্বশেষ শারীরিক পরিস্থিতি সম্পর্কে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, 'বাবা আগের চেয়ে এখন একটু ভালো আছেন৷ গত সোমবার সকালে তাঁর নাক থেকে অক্সিজেনের নলটি খুলে নেয়া হয়েছে৷ বাবাকে ওষুধ খাওয়াতে বলেছেন চিকিৎসকরা৷ কিন্তু তিনি সেটা খেতে চাইছেন না৷ অসম্ভব অভিমান করছেন৷' তিনি আরো জানিয়েছেন, ' এই সময়ে তাঁকে এমআর, ইসিজি, রক্তের বেশ কয়েক ধরনের পরীক্ষাসহ আরো কিছু প্যাথলজিক্যাল পরীক্ষার কথা বলা হয়েছে৷ এই সবগুলো টেস্ট করতে প্রায় ত্রিশ হাজার টাকা প্রয়োজন৷ কিন্তু সে টাকা যোগাড় করতে আবদুর রহমান বয়াতীর পরিবারের হিমশিম খেতে হচ্ছে৷

প্রতিবেদন: সাগর সরওয়ার

সম্পাদনা: সঞ্জীব বর্মন

সংশ্লিষ্ট বিষয়