1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

অরুণাচল প্রদেশকে নিজস্ব ভূখণ্ড বলে দাবি করলো চীন

প্রধানমন্ত্রী ড. মনমোহন সিং-এর বেজিং সফরের ঠিক আগে অরুণাচল প্রদেশের অধিবাসীদের পাসপোর্টে সাধারণ ভিসার পরিবর্তে ‘স্টেপল' ভিসা দেয়া নিয়ে ভারত-চীন দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কে সৃষ্টি হয়েছে নতুন এক জটিলতা৷

আগামী সপ্তাহে ড. মনমোহন সিং-এর বেজিং যাত্রার ঠিক আগে ভারতের বিতর্কিত অরুণাচল প্রদেশের অধিবাসীদের পাসপোর্টে সাধারণ ভিসার পরিবর্তে ‘স্টেপল' ভিসা দেয়া নিয়ে চীন-ভারত সম্পর্কে নতুন করে জটিলতা মাথা চাড়া দিয়েছে৷ ভারতের তরফে বলা হয়েছে, ‘স্টেপল' ভিসা মেনে নেবার প্রশ্নই ওঠে না৷ কারণ অরুণাচলের অধিবাসীরা ভারতীয়৷ অন্যদিকে চীনের বক্তব্য, এই সিদ্ধান্ত চীনের ভিসা নীতির সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ এবং তা বহাল থাকবে৷ কারণ অরুণাচলে বসবাসকারীদের ভারতীয় নাগরিক বলে মনেই করে না চীন৷

চীনের এই পদক্ষেপকে বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করছে রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা৷ ‘স্টেপল' ভিসার অর্থ অরুণাচল প্রদেশের ওপর ভারতের সার্বভৌমত্ব ও অখণ্ডতাকে আবারো চ্যালেঞ্জ জানানো এবং অরুণাচল প্রদেশের ৯০ হাজার বর্গ কিলোমিটার এলাকার ওপর চীনের আঞ্চলিক দাবি কায়েম করার ইঙ্গিত৷ ভারতের পাল্টা দাবি, আকসাই চীনের ৩৮ হাজার বর্গ কিলোমিটার এলাকা দখল করে রেখেছে চীন৷ বিশ্লেষকদের মতে, চীনের ভিসা নীতি সামঞ্জস্যপূর্ণ নয়৷ কারণ, গত পাঁচ বছর ধরে অরুণাচলবাসীদের সাধারণ, অর্থাৎ ‘স্ট্যাম্প' ভিসা দিয়ে এসেছে তারা৷ এই বৈপরিত্য দিল্লিকে শুধু বিস্মিত নয়, উদ্বিগ্নও করে তুলেছে৷

Passengers (C) check their boarding pass next to Air China counters at the Hongqiao airport in Shanghai on August 26, 2009. Air China, the nation's flag carrier, has said its net profit more than doubled in the first half of the year due to lower fuel prices, fuel hedging gains, and improving domestic travel demand. AFP PHOTO / PHILIPPE LOPEZ (Photo credit should read PHILIPPE LOPEZ/AFP/Getty Images)

বিশ্লেষকদের মতে, চীনের ভিসা নীতি সামঞ্জস্যপূর্ণ নয়

বেজিং-এ চলছে বিশ্ব যুব তীরন্দাজ চ্যাম্পিয়ানশিপ৷ ভারতীয় তীরন্দাজ দলে ছিলেন অরুণাচলের দু'জন অধিবাসী৷ তাঁদের দিল্লির চীনা দূতাবাস ‘স্টেপল' ভিসা দেয়ায় তাঁরা যেতে পারেননি৷ কারণ, ‘স্টেপল' ভিসা ভারত স্বীকার করে না৷

এই ভিসা ইস্যু নিয়ে চীনের অবস্থান গোড়ার দিকে ছিল, অরুণাচলের অধিবাসীদের জন্য চীন সফরে ভিসা লাগবে না, যেহেতু চীনের দাবি অনুযায়ী তাঁরা চীনের নাগরিক৷ দিল্লির কড়া প্রতিবাদের পর চীন কিছুটা নমনীয় হয়ে ২০১০ সালের বেজিং অলিম্পিকের সময় থেকে এই ‘স্টেপল' ভিসা দেয়া শুরু করে৷ ২০১১ সালে অরুণাচলের এক ক্যারাটে টিমকে এই কারণেই চীনগামী বিমানে উঠতে দেয়নি ভারতীয় কর্তৃপক্ষ৷ গত বছর ১০০ জন ছাত্রের এক প্রতিনিধিদলের একজন অরুণাচলের একটি মেয়েকে এই কারণেই যেতে দেয়া হয়নি৷ দিলে চীনের দাবিকেই কার্যত মেনে নেয়া হতো৷

এছাড়া, ভারত-চীন সীমান্ত বিরোধের মীমাংসা ১৬ দফা বৈঠকের পরও কোনো সমাধানসূত্র খুঁজে পাওয়া যায়নি৷ লাদাখ এলাকায় চীনের গতিবিধি এবং অনুপ্রবেশের কথিত অভিযোগ ভারতের ওপর এক ধরণের চাপ সৃষ্টির কৌশল বলে মনে করছে দিল্লির কূটনৈতিক মহল৷

শুধু অরুণাচল প্রদেশই নয়, ভারত নিয়ন্ত্রিত জম্মু-কাশ্মীরের ভারতীয়দেরও চীন ভারতীয় বলে স্বীকার করে না৷ ২০০৯ সালে তাঁদের ক্ষেত্রেও ‘স্টেপল' ভিসা দেওয়া হয়েছিল৷ কিন্তু ভারত কূটনৈতিক প্রক্রিয়ায় চীনকে বোঝাতে সক্ষম হলে চীন নিঃশব্দে তা তুলে নেয়৷ তবে ভারতের পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্য অরুণাচলের ক্ষেত্রে তা হবে কিনা, সেটা বলা মুশকিল৷

বিরোধী দল বিজেপি প্রধানমন্ত্রী ড. সিংকে তাঁর বেজিং সফরকালে চীনের প্রেসিডেন্ট এবং প্রধানমন্ত্রীর মতো শীর্ষ রাজনৈতিক নেতৃত্বের সঙ্গে বৈঠকে এই ভিসা ইস্যুটি তোলার দাবি জানিয়েছে৷ ভারতের রাষ্ট্রপতিকেও এ বিষয়ে উদ্যোগী হবার অনুরোধ করেছে বিজেপি৷ অরুণাচলের ছাত্র ইউনিয়নের এক প্রতিনিধিদল প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে নতুন দিল্লিতে তাঁর বাসভবনে দেখা করে অনুরূপ অনুরোধ করেছে৷ বলেছে, চীন যদি এই ধরণের ভিসা নীতি চালিয়ে যায়, তাহলে ভারতেরও উচিত চীনা নাগরিকদের ভারতে আসার জন্য সাধারণ ভিসার পরিবর্তে ‘স্টেপল' ভিসা দেয়া৷ দিল্লির অবস্থান অবশ্য ‘‘চোখের বদলে চোখ'' নীতি অবলম্বন না করে কূটনৈতিক পথে বিষয়টির সমাধান করা৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন