1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

অভিবাসনপ্রত্যাশীরা উধাও, ম্যার্কেল আরো সংকটে

যাঁকে মনে করা হতো ইউরোপের সবচেয়ে ক্ষমতাবান, সেই আঙ্গেলা ম্যার্কেলের আসন এখন নিজের দেশেই টালমাটাল৷ ‘শরণার্থী সংকট' নিয়ন্ত্রণে না আসা পর্যন্ত পরিস্থিতির উন্নতির সম্ভাবনা কম৷ জাতিসংঘের প্রতিবেদন সংকট বাড়ার ইঙ্গিতই দিচ্ছে৷

জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা ইউএনএইচসিআর-এর সর্বশেষ প্রতিবেদন বলছে, মধ্যপ্রাচ্য থেকে অভিবাসনপ্রত্যাশীদের ইউরোপমুখী স্রোত আগের সব সময়ের চেয়ে অনেক বেশি প্রবল৷ শুধু অক্টোবর মাসেই ইউরোপে প্রবেশ করেছে ২ লক্ষ ১৮ হাজার অভিবাসনপ্রত্যাশী৷ এর মধ্যে ২ লক্ষ ১০ হাজার ২৬৫ জন সমুদ্রপথে তুরস্ক থেকে ঢুকেছে গ্রিসে৷ বাকি ৮ হাজার ১২৯ জন উত্তর আফ্রিকার দেশগুলো থেকে ইটালিতে ঢুকেছে৷ শুরুতে গ্রিস আর ইটালিতে প্রবেশ করলেও অভিবাসনপ্রত্যাশীরা অর্থনৈতিকভাবে সমৃদ্ধ ইউরোপীয় দেশগুলোতে ছড়িয়ে পড়ছে৷ ইউএনএইচসিআর-এর হিসেব অনুযায়ী এ বছর মোট অন্তত ৬ লক্ষ মানুষ অভিবাসী হতে ইউরোপে এসেছে৷

সবচেয়ে বেশি অভিবাসনপ্রত্যাশী এসেছে জার্মানিতে৷ আঙ্গেলা ম্যার্কেল সরকার এখনো স্বাগতই জানাচ্ছে অভিবাসনপ্রত্যাশীদের৷

তবে উল্টো স্রোত তীব্র থেকে তীব্রতর হচ্ছে রাজনীতির ময়দানে৷ ব্যাপক হারে অভিবাসনপ্রত্যাশীদের আগমনে জার্মান চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেল জোটের মধ্যেই কোণঠাসা৷ বিশ্লেষকরার বলছেন, এখন তিনি রাজনৈতিক জীবনেরই সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি৷

এবং সেই চ্যালেঞ্জের সামনে তিনি একা!

এদিকে অভিবাসনপ্রত্যাশীদের নিয়ে জনমনেও ক্ষোভ এবং শঙ্কা বাড়ার ইঙ্গিত দেখা যাচ্ছে৷ জার্মানির কিছু শিবির থেকে হঠাৎ উধাও হয়ে যাচ্ছেন অভিবাসনপ্রত্যাশীরা৷ অনেকে নাম, পরিচয় নথিভুক্ত করার আগেই গোপনে শিবির ছাড়ছেন৷ লোয়ার স্যাক্সনির শিবিরগুলো থেকে এ পর্যন্ত ৭০০ অভিবাসনপ্রত্যাশী উধাও হয়ে যাওয়ায় স্থানীয় প্রশাসনও পড়েছেন সমালোচনার মুখে৷ অনেকেই নাম নথিভুক্ত করার আগেই চলে গেছেন বলে সারা দেশের মোট ‘নিখোঁজ' অভিবাসনপ্রত্যাশীর সংখ্যা নির্ণয় করা যাচ্ছেনা৷ তবে সংখ্যাটা যত বড় হচ্ছে, ততই বাড়ছে অসন্তোষ, ক্ষোভ, শঙ্কা এবং ম্যার্কেলের সমালোচনা৷

কোথাও কোথাও চোরাগোপ্তা হামলার শিকারও হচ্ছেন অভিবাসনপ্রত্যাশীরা৷

সংকলন: আশীষ চক্রবর্ত্তী

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ

আপনি কি ম্যার্কেলের এই অভিবাসননীতি সমর্থন করেন? জানিয়ে দিন নীচের মন্তব্যের ঘরে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়