1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

অবৈধ ডাউনলোড বন্ধে স্মার্টফোনেই বসাও কর

প্রস্তাবটা এসেছে ফ্রান্সের একটি বিশেষজ্ঞ প্যানেলের কাছ থেকে৷ তাঁরা বলছেন মানুষের অভ্যাস হচ্ছে, তারা পয়সা দিয়ে ডাউনলোড করতে চায় না৷ কিন্তু কাড়ি কাড়ি টাকা দিয়ে স্মার্টফোন, ট্যাবলেট এগুলো কেনে৷

আজকের যুগে প্রায় সবকিছুই ইন্টারনেটে পাওয়া যাচ্ছে৷ কোনো শিল্পীর গান রিলিজ হলো, ক'দিন পর সেটা নেটেই পাওয়া যায়৷ তাই মানুষ আর অর্থ খরচ করে অ্যালবাম কিনতে চায় না৷ নতুন রিলিজ পাওয়া মুভির ক্ষেত্রেও তাই৷

এ অবস্থায় শিল্প-সংস্কৃতির ক্ষেত্রে ফ্রান্সের ভরতুকি ব্যবস্থা কীভাবে চালিয়ে নেয়া যায়, তার জন্য একটা প্রস্তাব দিতে বিশেষজ্ঞ প্যানেল গঠন করেছিল ফ্রান্সের সরকার৷ তারাই সম্প্রতি প্রেসিডেন্ট ফ্রঁসোয়া ওলঁদের কাছে ৮০টি প্রস্তাব সম্বলিত একটি প্রতিবেদন জমা দিয়েছে৷

Eine Frau hält ein Smartphone, auf das sie auch das App des Internet-Unternehmens Groupon installiert hat, aufgenommen am 14.08.2012 in Berlin. Foto: Jens Kalaene dpa/lbn

স্মার্টফোন আর ট্যাবলেটের উপর বসানো কর থেকে যে অর্থটা আসবে তা শিল্পী ও প্রকাশকদের দেয়া যেতে পারে

ঐ প্যানেল বলছে, স্মার্টফোন আর ট্যাবলেটের উপর বসানো কর থেকে যে অর্থটা আসবে তা শিল্পী ও প্রকাশকদের দেয়া যেতে পারে৷

এছাড়া, অবৈধ ডাউনলোড বন্ধ করতে তিন বছর আগে যে সংস্থা গঠন করা হয়েছে সেটা অবলুপ্ত করে দেয়ার প্রস্তাবও দেয়া হয়েছে৷ ঐ সংস্থাটি অবৈধ ডাউনলোড করার জন্য ব্যবহারকারীদের জরিমানা করত৷ এমনকি অনেকের ইন্টারনেট সংযোগও কেটে দিত৷

বিশেষজ্ঞ প্যানেল বলছে, ইন্টারনেট সংযোগ কাটা যাবে না৷ আর জরিমানার পরিমাণ আগে যেটা ছিল সেই ১,৫০০ ইউরো থেকে কমিয়ে ৬০ ইউরো করতে হবে৷

কিন্তু তাহলে উপায় কী? প্যানেল বলছে ব্যবহারকারীরা যেন বৈধ উপায়ে ডাউনলোড করতে আগ্রহী হয় সে ব্যবস্থা করতে হবে৷ যেমন প্রেক্ষাগৃহে মুভি রিলিজ ও অনলাইনে রিলিজ করার মধ্যবর্তী সময়টা কমানো যেতে পারে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা৷

জেডএইচ/ডিজি (ডিপিএ)

নির্বাচিত প্রতিবেদন