1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

পাঠক ভাবনা

অবাধ ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন দেখতে আগ্রহী

৫ জানুয়ারি বাংলাদেশে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন৷ সোমবার সন্ধ্যায় জাতির উদ্দেশ্যে দেওয়া ভাষণে এ কথা জানান প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী রকিবউদ্দীন আহমদ৷ বিষয়টি নিয়ে ডয়চে ভেলের মূল প্রতিবেদনে অনেক পাঠক মন্তব্য করেছেন৷

default

৫ জানুয়ারি বাংলাদেশে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন

শৈলেন্দ্র প্রসাদ চৌধুরি মানিক লিখেছেন, বিএনপির নির্বাচনে যাওয়া উচিত এবং সংলাপে গিয়ে তাদের অবস্থান জানানো উচিত৷ তা না হলে বিএনপির টিকে থাকাই বড় প্রশ্ন হয়ে উঠতে পারে৷ অন্যদিকে রফিকুল ইসলাম লিখেছেন, বিএনপির এই সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাওয়া আর নিজের পায়ে নিজে কুড়াল মারা একই কথা৷

দেশের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন ফারিয়া তাবাসসুম৷ লিখেছেন, ‘‘দেশ চলেছে কোন পথে, আমরা যাব কার সাথে?''

সুখময় মাঝি লিখেছেন, ‘‘আমরা অবাধ ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন দেখতে আগ্রহী৷

Bangladesch Dhaka Plakate

‘বিএনপির নির্বাচনে যাওয়া উচিত এবং সংলাপে গিয়ে তাদের অবস্থান জানানো উচিত‘

মাহবুব এলাহী লিখেছেন, সময়, স্রোত আর নির্বাচন কারো জন্য অপেক্ষা করে না৷ সবার জানার জন্য বলছি, ১৯৭৯ এবং ১৯৮১ সালে আওয়ামী লীগ বিএনপির অধীনে নির্বাচনে যোগ দেয়৷ তখন নির্বাচন কমিশনও ছিল না, এমনকি বিটিভি ছাড়া অন্য কোনো চ্যানেলও ছিল না৷

প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী রকিবউদ্দীন আহমদ সোমবার জানিয়েছেন, ‘‘তফসিল অনুযায়ী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মনোনয়ন-পত্র দাখিলের শেষ দিন ২ ডিসেম্বর৷ মনোনয়ন-পত্র বাছাই ৫ এবং ৬ ডিসেম্বর৷ মনোনয়ন-পত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন ১৩ ডিসেম্বর৷ আর নির্বাচন হবে ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি৷'' – এ নিয়ে আজিজুল ইসলাম লিখেছেন, বাংলাদেশে যারা নির্বাচনে হারে তারা বলে নির্বাচন সঠিক হয়নি৷ তাই এবার অন্তত বিএনপি ঐ বাক্য করলেই বুঝা যাবে যে, আরো একটা গ্রহণযোগ্য নির্বাচন হলো৷

এছাড়া অনেকেই আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন, অবরোধ এবং সহিংসতার পর আসলেই নির্বাচন হবে কিনা – তাই নিয়ে৷

সংকলন: অমৃতা পারভেজ

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ

নির্বাচিত প্রতিবেদন