1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

অবহেলায় পড়ে ছিল পিকাসোর শিল্পকর্ম

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় নাৎসিরা গোটা ইউরোপে অনেক শিল্পকর্ম চুরি করেছিল,পরে যেগুলির হদিশ পাওয়া যায়নি৷ মিউনিখের একটি ফ্ল্যাটে সেই সময়ের কিছু নিখোঁজ গুপ্তধন পাওয়া গেছে৷ একটি পত্রিকার মতে, ছবিগুলির দাম প্রায় একশো কোটি ইউরো৷

যুদ্ধ মানেই অরাজকতা৷ ‘চাচা আপন প্রাণ বাঁচা' – এই চিন্তাই মানুষকে তাড়া করে বেড়ায়৷ সেখানে বিলাসিতার কোনো জায়গা নেই৷ অতিপ্রয়োজনীয় জিনিস-পত্র নিয়ে কোনোরকমে ঘর ছেড়ে পালিয়ে যেতে হয় অনেক মানুষকে৷ দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় ইউরোপেও একই অবস্থা দেখা গেছে৷ অনেক মূল্যবান সামগ্রী হয় ধ্বংস হয়ে গেছে অথবা হারিয়ে গেছে৷ চুরির ঘটনাও কম নয়৷ বহুকাল পরে তেমনই কিছু আবার খুঁজে পেলে বিস্ময় জাগে বৈকি৷

মিউনিখ শহরে একটি ফ্ল্যাটে এবার সে রকম আবিষ্কারের ঘটনা ঘটেছে৷ একটি-দুটি নয়, প্রায় ১,৫০০ শিল্পকর্ম সবার অলক্ষ্যে পড়ে ছিল সেখানে৷ বেশ অবহেলায়, জঞ্জালের মধ্যে৷ ‘ক্লাসিকাল মডার্ন' যুগের ছবি সেগুলি৷ শিল্পীদের নাম শুনলে চোখ কপালে ওঠার কথা! পাবলো পিকাসো, ফ্রানৎস মার্ক, পাউল ক্লে, অঁরি মাতিস, মাক্স বেকমান সহ আরও অনেকের ছবি পাওয়া গেছে সেখানে৷ সাপ্তাহিক ‘ফোকুস' পত্রিকার সূত্র অনুযায়ী, এ সব ছবির দাম প্রায় একশো কোটি ইউরো তো হবেই৷

Pablo Picassos Bild Pierrot und Harlekin im Profil ist am 25.01.2013 im Picasso-Museum in Münster (Nordrhein-Westfalen) ausgestellt. Das Picasso-Museum präsentierte zwei neue Ausstellungen, die ab dem 26. Januar parallel gezeigt werden: Die Picassos aus Arles _ Tagebuch eines Malers und Georges Braque _ Von Göttern, Helden und Vogelzeichen. Foto: Bernd Thissen/dpa

পিকাসোর ছবি

জার্মান সরকার ২০১১ সালেই এই গুপ্তধনের খবর পেয়েছিলো৷ নাৎসি আমলে যে সব শিল্পকর্ম চুরি করা হয়েছিল, তার খোঁজ চলছে বহুকাল ধরে৷ তখনই মিউনিখের ফ্ল্যাটে তল্লাশি চালানো হয়৷ তবে এই ভাণ্ডার সম্পর্কে সে সময়ে সম্পূর্ণ ধারণা পাওয়া যায়নি৷ আপাতত ছবিগুলি বাজেয়াপ্ত করে একটি জায়গায় রাখা হয়েছে৷ বিশেষজ্ঞরা সেগুলির সঠিক মূল্য নির্ধারণ করবেন৷ কোথা থেকে কী ভাবে ছবিগুলি এসেছে, তাও জানার চেষ্টা চলছে৷ পিকাসোর একটি ছবির মালিকের হদিশ পাওয়া গেছে৷ তিনি ছিলেন পিকাসোর ফরাসি বন্ধু পল রেজেনবার্গ৷ ১৯৪০ সালে এই ইহুদি আর্ট ডিলার সব কিছু ফেলে প্যারিস ছাড়তে বাধ্য হয়েছিলেন৷

এখন প্রশ্ন হলো, সব ছবি কি পাওয়া গেছে? কর্নেলিয়ুস গুরলিট নামের যে অবসরপ্রাপ্ত ব্যক্তির ফ্ল্যাটে শিল্পকর্মগুলি পাওয়া গেছে, তাঁর মা হিল্ডেব্রান্ড গুরলিট নামকরা আর্ট ডিলার ছিলেন৷ ২০১১ সালে ফ্ল্যাটে কর্তৃপক্ষ তল্লাশি চালানোর কয়েক মাস পর কর্নেলিয়ুস মাক্স বেকমানের আঁকা একটি ছবি নিলামে চড়ান৷ এমন আরও ছবি হয়ত হাতছাড়া হয়ে গেছে৷

এসবি/ডিজি (ডিপিএ, এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন