1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

অবশেষে বন্যার্তদের পাশে পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট

অবশেষে সময় হলো পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট আসিফ আলী জারদারির৷ বন্যা শুরুর দুই সপ্তাহ পর তিনি ক্ষতিগ্রস্তদের দেখতে গেলেন৷ এদিকে পাকিস্তানের জন্য সাহায্যের পরিমাণ আরও এক দফা বাড়ালো যুক্তরাষ্ট্র৷

default

বন্যা শুরুর পর বন্যা কবলিত এলাকায় না গিয়ে ইউরোপ সফর করায় দেশ ও দেশের বাইরে ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েছিলেন জারদারি৷ তাই দেশে ফিরে গতকাল যখন তিনি প্রথমবারের মত বন্যার্তদের দেখতে গেলেন, তখন তাঁর একটা ভয় ছিল মনে মনে, যে কী বলে সাধারণ জনগণ৷ তাই শুধুমাত্র রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন ছাড়া আর কোন চ্যানেলকে তার সফর কাভার করতে দেয়া হয়নি৷ এমনকি জনগণ কী বলছে তা যেন বোঝা না যায়, সেজন্য রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে সফরের ছবি দেখানোর সময় শব্দ বন্ধ রাখা ছিল৷

এই সফরে জারদারি সিন্ধু প্রদেশের শুকুর এলাকায় যান৷ সেখানে একটি বাঁধ রয়েছে৷ বন্যার পানির তোড়ে যদি এই বাঁধ ভেঙে যায়, তাহলে বিস্তীর্ণ এলাকা বন্যার পানিতে তলিয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে৷ তবে বেশিরভাগ

Pakistan Hochwasser Flut

সময়ই জারদারি হেলিকপ্টারে করে ঘুরে বেড়িয়েছেন৷ মাত্র কিছুক্ষণের জন্য তিনি নিচে নেমেছিলেন বলে জানা গেছে৷ তাইতো প্রধান বিরোধী দল জারদারির এই সফরকে ‘খুব সংক্ষিপ্ত' ও ‘খুব দেরিতে করা' বলে সমালোচনা করেছে৷

আন্তর্জাতিক সাহায্য

এখন পর্যন্ত ১৯৫ মিলিয়ন ডলার সাহায্যের অঙ্গীকার পাওয়া গেছে বলে জানা গেছে৷ পাকিস্তানে কর্মরত জাতিসংঘের জরুরি ত্রাণ সমন্বয়ক সংস্থার এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা দিয়েছেন এই তথ্য৷ তবে জাতিসংঘ মোট ৪৬০ মিলিয়ন ডলারের আবেদন করেছে৷ যুক্তরাষ্ট্র তাদের সহায়তার পরিমাণ তৃতীয়বারের মত বাড়িয়ে ৭৬ মিলিয়ন ডলার করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে৷ এছাড়া বিভিন্ন দেশকে আরও সহায়তা নিয়ে এগিয়ে আসতে উৎসাহ দিতে মার্কিন সেনেটর জন কেরি আগামী সপ্তাহে পাকিস্তান সফরে যাবেন বলে জানা গেছে৷ উল্লেখ্য, কেরি হলেন মার্কিন সেনেটের বৈদেশিক সম্পর্ক কমিটির প্রধান৷

ফসলের ক্ষয়ক্ষতি

ফসলের ব্যাপক ক্ষতির খবর পাওয়া যাচ্ছে৷ বিশেষ করে গম, তুলা আর আখের৷ বন্যার কারণে পাকিস্তানের অবকাঠামো ভেঙে গিয়ে যেমন এক ধরণের ক্ষতি হয়েছে, তেমন ফসল ডুবে যাওয়ায় কৃষকের মাথায় হাত৷ কেননা এই ফসল বিক্রি করেই অনেক কৃষকের বছর চলতো৷ কিন্তু এখন এই পরিস্থিতিতে সামনের দিনগুলো কীভাবে কাটবে, তাই নিয়ে চিন্তিত কৃষকরা৷

সর্বশেষ পরিস্থিতি

এ ব্যাপারে পাকিস্তানের প্রধান আবহাওয়াবিদ বলছেন, কিছু কিছু এলাকায় বন্যার পানির স্তর কিছুটা নেমেছে৷ তবে এখনো কিছু এলাকায় বৃষ্টির খবর পাওয়া যাচ্ছে৷ আর বর্ষাকাল শেষ হতে এখনো প্রায় তিন সপ্তাহ বাকি৷ এই সময়টাতে আরও বৃষ্টিপাতের কথা বলছে আবহাওয়া অফিস৷

প্রতিবেদন: জাহিদুল হক

সম্পাদনা: সঞ্জীব বর্মন