1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

অবশেষে এবারের বুকার পেলেন ব্রিটিশ লেখক হাওয়ার্ড জ্যাকবসন

বিষয়টি একেবারেই অভাবনীয়৷ এর আগে বেশ কয়েকবারই তাঁর নাম বুকার মনোনয়নের তালিকায় উঠেছে, কিন্তু প্রতিবারই শূন্যহাতে ফিরে গেছেন তিনি৷

default

‘দ্য ফিংকলার কোয়েশ্চেন' উপন্যাস হাতে ব্রিটিশ লেখক হাওয়ার্ড জ্যাকবসন

অবশেষে তাঁর রসাত্মক উপন্যাস ‘দ্য ফিংকলার কোয়েশ্চেন' এর জন্য ব্রিটিশ কলামিস্ট, লেখক হাওয়ার্ড জ্যাকবসন পঞ্চাশ হাজার পাউন্ড সমমূল্যের ২০১০ সালের মান বুকার পুরস্কারটি হাতে পেলেন৷

‘আমি সত্যিই ভাবিনি! এটা সত্যিই অভাবনীয় যে আমি বুকার পেলাম৷' লন্ডনের গিল্ডহলে পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানটির পরপর উপস্থিত সংবাদমাধ্যমকে তিনি এভাবেই তাঁর অনুভূতি জানিয়েছেন৷

তাঁর এই উপন্যাসটির কল্যাণে কোন হাস্যরসাত্মক উপন্যাসের লেখক এই প্রথমবারের মতো ইংরেজি ভাষা-ভাষী লেখকদের জন্য অত্যন্ত মর্যাদার এই পুরস্কারে ভূষিত হলেন৷ সেঅর্থে এটি একটি ইতিহাসই রচনা করলো৷

জানা গেছে, এর আগে দুই দুইবার তিনি খালি হাতে ফেরত গেলেও ‘দ্য ফিংকলার কোয়েশ্চেন' এর লেখক হাওয়ার্ড জ্যাকবসন এবারের ৫ বিচারকের ৩ জনকেই তার লেখা'র গুণমুগ্ধ বানাতে সক্ষম হয়েছিলেন৷ যেকারণে এবারের বুকার মনোনয়ন তালিকার অন্যতম জনপ্রিয় মুখ টম ম্যাকার্থিকে ডিঙিয়ে, দুই দুই বারের বুকার বিজেতা লেখক পিটার ক্যারেকে টপকে জ্যাকবসন ২০১০ সালের বুকারটি জিতলেন৷

রসিক জ্যাকবসন বলেছেন, ‘বিচারকরা মনোনয়নের সেই দীর্ঘ তালিকাটিতে যেন বড় বেশি সময় ধরেই আমায় তাঁদের দুহাতের মধ্যে ধরে রেখেছিলেন! ছোট তালিকাটিতে ঠাঁই পাওয়ার বিষয়টি আমার কাছে ছিলো আলিঙ্গনের মতো৷ ভাবিনি! এই বহুপ্রত্যাশিত আলিঙ্গনের মুহূর্তটি এতো দ্রুত ফুরিয়ে যাবে৷'

যুক্তরাজ্যের গার্ডিয়ান পত্রিকা লিখেছে, সাহিত্য পুরস্কারের তালিকায় সবচেয়ে অবহলিত আর উপেক্ষিত ধারাটির বিজয় হয়েছে৷ এদিকে ইনডিপেন্ডেন্ট লিখেছে, এই পুরস্কার ঘোষণার মাধ্যমে এবারের বুকার বিচারকদের এই ঘোষণা সনাতনি ছাঁচটিকে যেন ভেঙে দিয়েছে৷

২৭ বছর আগে তাঁর প্রথম উপন্যাসটি প্রকাশিত হয়েছিল৷ রসাত্মক উপন্যাস ‘দ্য ফিংকলার কোয়েশ্চেন' এর লেখক হাওয়ার্ড জ্যাকবসনের লেখার মতো তাঁর বাচন ভঙ্গীটিও বহুমাত্রিক৷ ২০১০ সালের এই সম্মানজনক বুকার পুরস্কার পাওয়ার পর এ লেখক বলেছেন, ‘আমার যা বয়স তাতে ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে ঠিক কত জমলো তা আর এখন আমায় টানে না৷ পাঠকরা যেমনটি আমায় টানেন৷'

প্রতিবেদন: হুমায়ূন রেজা

সম্পাদনা: আব্দুল্লাহ আল-ফারূক

ইন্টারনেট লিংক