1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

জার্মানি

‘অপ্রয়োজনে' অস্ত্রোপচার হচ্ছে জার্মান হাসপাতালগুলোতে

জার্মানির হাসপাতালগুলো এখন তীব্র আর্থিক চাপে আছে এবং ডাক্তাররা অনেকক্ষত্রেই নাকি রোগীকে অপ্রয়োজনীয় চিকিৎসা করানোর প্রস্তাব দিচ্ছেন৷ সম্প্রতি প্রকাশিত এক গবেষণায় জার্মান স্বাস্থ্যসেবা নিয়ে এ ধরনের তথ্য উঠে এসেছে৷    

ব্রেমেন বিশ্ববিদ্যালয়ে পরিচালিত নতুন এ গবেষণার বলা হচ্ছে, জার্মান হাসপাতালগুলো ও ডাক্তাররা এখন নাকি রোগীদের ব্যয়বহুল চিকিৎসা এবং অপ্রয়োজনীয় অপারেশন করার উপদেশ দিচ্ছেন৷ বলা বাহুল্য, কখনও কখনও তা সত্যিই হুমকি হয়ে দাঁড়াচ্ছে৷

সারাদেশের ৬০ জন ডাক্তার ও হাসপাতালের পরিচালকের সাক্ষাত্কারের ভিত্তিতে এই গবেষণাটি করা হয়৷ এতে দেখা যায় যে, বিশেষ বয়স্কদের জটিল রোগের চিকিৎসার ক্ষেত্রে জার্মানদের বেশ ভুগতে হচ্ছে৷

গবেষণাটির লেখক কার্ল হাইনৎস ভেহকাম্প নিজেও একজন ডাক্তার৷ তিনি বলেন, ‘‘এ বিষয়ে আমরা আরও অনেক ডাক্তারের সঙ্গেই কথা বলতে পারতাম৷ কারণ তাঁদের বেশিরভাগই এ নিয়ে কথা বলতে চান এবং তাঁরা মনে করেন যে, সাধারণ মানুষ ও রাজনীতিবিদদের এ সব ব্যাপারে আরও সজাগ হওয়া উচিত৷''

অপ্রয়োজনীয় যে কোনো অপারেশন এবং চিকিৎসার সম্ভাব্য ক্ষতি রয়েছে৷

অপ্রয়োজনীয় যে কোনো অপারেশন এবং চিকিৎসার সম্ভাব্য ক্ষতি রয়েছে৷

স্বাস্থ্যবীমা কোনো সমস্যা নয়

জার্মানিতে মূলক দু'ধরনের স্বাস্থ্যবীমা রয়েছে – ব্যক্তিগত এবং সরকারি৷ ব্যক্তিগত স্বাস্থ্যবীমার আওতায় যারা চিকিৎসা করান, সেইসব রোগীদের পরামর্শ কেন্দ্র ইউপিডি-র মেডিকেল পরিচালক ডা. ইওহানেস শেঙ্কেল বলেন, গবেষণাটি থেকে পাওয়া অনুসিদ্ধান্তগুলো নতুন নয়, তবে কোনো কোনো ক্ষেত্রে ডাক্তারদের সাক্ষাত্কার তাঁকেও বিস্মিত করে৷ ‘‘সবার আগে তাঁদের পেশাদারিত্বের কথা মনে রাখতে হবে'' বলেন তিনি৷ 

অতীতেও বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে যে, জার্মান ডাক্তাররা প্রায়ই শরীরের পেছন ও নীচের অংশের ব্যাথার জন্য অকারণে এক্স-রে, ইসিজি ও অপ্রয়োজনীয় ব্লাডার ক্যাথেটার দিচ্ছেন৷

এই অতি চিকিৎসা কি রোগীর স্বাস্থ্যের জন্য হুমকিস্বরূপ? শেঙ্কেল বলেন, ‘‘অপ্রয়োজনীয় যে কোনো অপারেশন এবং চিকিৎসার সম্ভাব্য ক্ষতি রয়েছে৷ মূত্রাশয়ের একটি সাধারণ ক্যাথেটার থেকে নানা সংক্রমণ হতে পারে৷ আর শক্ত ধরনের ক্যাথেটার থেকে তো শরীরের ভেতরে রক্তক্ষরণসহ আরও অনেক মারাত্মক জটিলতা দেখা দিতে পারে৷''

রাজনৈতিক ব্যবস্থাসমূহ 

জার্মানির সোশ্যাল কেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের (ভিডিকে) স্বাস্থ্যসেবা বিষয়ক পরামর্শক আইনৎস ভার্সফোল জানান, গত কয়েক বছর ধরেই জার্মানি তার স্বাস্থ্যসেবা ব্যবস্থার সংস্কারের চেষ্টা করছে৷ কিন্তু তারপরও মুনাফা করার প্রবণতায় পরিবর্তন আসেনি৷ তিনি বলেন, ‘‘অপারেশনটি ভুল না সঠিক হচ্ছে, সেটা কোনো প্রশ্ন নয়৷ কারণ সেটা নির্ধারণ করা সহজ নয়৷ মৌলিক সমস্যাটি হচ্ছে, ডাক্তারদের সিদ্ধান্ত নিতে হবে: আমি কি এখনই অপারেশনটি করবো নাকি অপেক্ষা করব?''

এক ই-মেল বিবৃতিতে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র দাবি করেন যে, বিগত দিনগুলোতে সরকার অনেকবার এই অতিরিক্ত চিকিত্সা প্রবণতা কমাতে বেশ কিছু পদক্ষেপ নিয়েছে৷

নিজেদের তৈরি করা সমস্যা

ডা. শেঙ্কেল মনে করেন, ‘‘এই সমস্যা জার্মানির স্বাস্থ্যসেবা নীতির কারণেই সৃষ্টি হয়েছে৷ হাসপাতালগুলোর এই অর্থনৈতিক চরিত্র আমাদেরই তৈরি করা৷ নব্বইয়ের দশকের শেষ দিকে এই নিয়ম চালু হওয়ার সময়ই বোঝা গিয়েছিল যে, এ ধরনের সমস্য তৈরি হবে৷''

তবে হাসাপাতালে চিকিৎসার সময় খরচ মেটানোর পদ্ধতিতে সংস্কার খানিকটা কাজে এসেছে৷ হাসপাতালে থাকার প্রত্যেক দিনের খরচের বদলে যে রোগটি হয়েছে তার সেরে যাওয়ার পর টাকা দেয়ার নিয়ম চালু হওয়ায় চিকিৎসা ব্যবস্থায় অনেকটা সচলতা এসেছে৷

অবশ্য ভার্সফোলের মতে, ‘‘আগের নিয়মটি ভালো ছিল না৷ কারণ রোগী সেরে ওঠার পরও শুধুমাত্র টাকার জন্য তাঁকে নানা অজুহাতে হাসপাতালে রেখে দেয়া হতো৷ কিন্তু এখন আবার বিপরীত ধরনের সমস্যা হয়েছে৷ রোগীরা এখন পুরোপুরি সুস্থ্য না হতেই তাঁদের ছেড়ে দিচ্ছে হাসপাতাল কতৃপক্ষ৷''

বেন নাইট/এএম

নির্বাচিত প্রতিবেদন