1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

অন্বেষণ

অপচয় বন্ধ করে কারখানায় জ্বালানি সাশ্রয়

জ্বালানি সাশ্রয় আজ আর শুধু গৃহস্থের মাথাব্যথা নয়, বড় বড় সংস্থাও নানাভাবে সেই চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে৷ যেমন জার্মানির একটি বিয়ার কারখানা৷ খুবই সহজ পদ্ধতিতে তারা কার্যকর পদক্ষেপ নিচ্ছে৷

বিয়ার কারখানার বাতাসে টক-মিষ্টি গন্ধ৷ এটা নাকি মল্ট বা যব থেকে আসে৷ এই মল্ট-ই বিয়ারের স্বাদ ও গন্ধ নির্ধারণ করে৷ ট্যাংকে রাখা বিয়ার বিক্রির উপযোগী হতে প্রায় ৩ সপ্তাহ সময় নেয়৷ সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে কারখানার বিশেষজ্ঞ বললেন, বিয়ার প্রস্তুত হয়ে গেছে৷ স্বাদে-গন্ধে দারুণ৷

এই প্রক্রিয়ার জন্য অনেক সময় ও জ্বালানির প্রয়োজন হয়৷ বিশেষ করে বিয়ার কারখানার এই মূল কেন্দ্রে এটা খুব জরুরি৷ বিয়ার মেশানোর ও ফোটানোর প্রক্রিয়ার ক্ষেত্রে কারখানার প্রধান জ্বালানি সাশ্রয়ের কিছু পথ খুঁজে পেয়েছেন৷

বিয়ার কারখানার প্রধান স্টেফেন ডিটমার বলেন, ‘‘আগে উত্তাপের দুটি উৎস ছিল৷

এখন একটিতেই কাজ চলে যায়৷ মেশিনের নিজস্ব উত্তাপ আর অপচয় হতে দিই না৷ তা স্টোর করে আবার কাজে লাগাই৷ এটাই হলো নতুনত্ব৷ তবে শুনতে সহজ মনে হলেও বিষয়টি বেশ জটিল৷''

আরেক প্রশ্নের উত্তরে স্টেফেন বললেন, প্রায় ৩০ শতাংশ জ্বালানির সাশ্রয় হয়৷ অর্থাৎ বছরে প্রায় ৫ লাখ কিলোওয়াট আওয়ার৷ বেশ বড় অঙ্ক বটে৷ নতুন এই প্রযুক্তির জন্য প্রায় ৩ লাখ ইউরো বিনিয়োগ করতে হয়েছে৷ বছর পাঁচেকের মধ্যে টাকা উঠে আসার কথা৷ গোটা সপ্তাহ জুড়ে সারা দিন যন্ত্র চলে, যাতে জ্বালানির কোনো অপচয় না হয়৷

বিয়ার কারখানায় কোথাও না কোথাও জ্বালানির অপচয় হচ্ছেই৷ স্টেফেন তাই সেখানেও সাশ্রয় করতে চান৷ প্রতিযোগিতার বাজারে এতে লাভই হবে৷ তবে যে সব সংস্থা আরও বেশি জ্বালানি ব্যবহার করে, তারা সরকারি স্তরে কিছু ছাড় পাওয়ায় স্টেফেন খুবই ক্ষুব্ধ৷ স্টেফেন ডিটমার বলেন, ‘‘জ্বালানির অপচয়ের জন্য ছাড় দেয়া মোটেই গ্রহণযোগ্য নয়৷ তার চেয়ে জ্বালানি সাশ্রয় কর্মসূচির প্রতি আরও মনোযোগ দেয়া উচিত৷ সেটাই হবে সঠিক পথ৷''

জার্মানির স্যাক্সনি রাজ্যের এই বিয়ার কারখানায় প্রতিদিন প্রায় দেড় লাখ লিটার বিয়ার তৈরি হয়৷ স্থানীয় চাহিদা মেটাতে ঘোড়ার গাড়িই যথেষ্ট৷ জ্বালানি সাশ্রয় আসলে খুবই সহজ হতে পারে৷ এর জন্য কোনো হাইটেক প্রযুক্তির প্রয়োজন পড়ে না৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

ইন্টারনেট লিংক