1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিজ্ঞান পরিবেশ

অনলাইনে ‘শরীরে বরফ পানি ঢালার’ হুজুগ

উদ্দেশ্য মহৎ৷ অ্যামিওট্রপিক ল্যাটেরাল সক্লেরোসিস বা এএলএস নামক এক স্নায়ুবিক রোগ সম্পর্কে সচেতনতা সৃষ্টি৷ আর সে লক্ষ্যে শরীরে বরফ পানি ঢেলেছেন অসংখ্য মানুষ৷ তাঁদের মধ্যে রয়েছেন বহু বিশিষ্ট ব্যক্তিও৷

ইদানীং ফেসবুক বা টুইটার চালু করলেই পাওয়া যাচ্ছে শরীরে পানি ঢালার বিভিন্ন ছবি বা ভিডিও৷ মার্ক সাকারবার্গ থেকে শুরু করে ক্রিস্টিয়ানো রোনাল্ডো পর্যন্ত সবাই এতে অংশ নিচ্ছেন৷ উদ্দেশ্য এএলএস অ্যাসোসিয়েশনের জন্য অর্থ সংগ্রহ৷ আর এ সংক্রান্ত ছবি বা ভিডিও অনলাইনে দেয়ার হ্যাশট্যাগ হচ্ছে #icebucketchallenge৷ এখন পর্যন্ত ঠিক কতজন মানুষ এভাবে শরীরে বরফ ঠান্ডা পানি ঢেলেছেন জানা যায়নি৷ তবে ফেসবুকের সহ-প্রতিষ্ঠাতা মার্ক সাকারবার্গ মনোনয়ন দেয়ায় খোদ মাইক্রোসফটের চেয়ারম্যান বিল গেটসও তাতে সাড়া দিয়েছেন৷

শরীরে বরফ পানি ঢালার ক্ষেত্রে নিয়মটা বেশ সহজ৷ এতে অংশগ্রহণকারী তাঁর শরীরে বরফ পানি ঢালেন৷ এরপর তিনি তাঁর তিনজন বন্ধুকে একই কাজ করার জন্য চ্যালেঞ্জ জানান৷ এই চ্যালেঞ্জ আবার ২৪ ঘণ্টার মধ্যে গ্রহণ করতে হবে৷ নতুবা ১০০ মার্কিন ডলার দান করতে হবে এএলএস ফাউন্ডেশনকে৷ তবে পানি ঢাললেও দান থেকে রেহাই নেই৷ সেক্ষেত্রে দিতে হবে দশ মার্কিন ডলার৷ পর্তুগালের ফুটবল তারকা ক্রিস্টিয়ানো রোনাল্ডোও এই চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করেছেন৷

বাদ নেই সংগীত শিল্পী লেডি গাগাও৷ তিনি আবার বেশ আয়েশ করে পানি ঢেলেছেন৷

তবে বাংলাদেশের সমাজকর্মী করভি রাকসান্দ আইস বাকেট চ্যালেঞ্জের একটি ভিন্ন দিক তুলে ধরেছেন৷ তাঁর মতে, এভাবে অনেক পানি অপচয়ও করা হচ্ছে৷ বিশেষ করে যেখানে কোটি কোটি শিশু সুপেয় পানির সংকটে রয়েছে, সেখানে এভাবে পানি অপচয় ঠিক নয় বলেও মত করভি'র৷ তাঁর পোস্ট করা ভিডিওটি রয়েছে এখানে:

তবে আলোচনা, সমালোচনা যাই থাক ‘আইস বাকেট চ্যালেঞ্জ' থেকে এএলএস ফাউন্ডেশনের অর্থ আয়ের পরিমান কিন্তু কম নয়৷ এনবিসি নিউজকে ফাউন্ডেশনটি জানিয়েছে, গত তিন সপ্তাহে এই অনলাইন হুজুগ থেকে তাদের আয় হয়েছে প্রায় ১৬ মিলিয়ন মার্কিন ডলার৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন