1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

‘অত্যাচারী সরকারের বিরুদ্ধে রাজপথে আন্দোলন করা যায় না'

বিজয় দিবসে সরকারের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের মাধ্যমে বাংলাদেশে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনার কথা বলেছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর৷ কিন্তু আন্দোলনে নামা নিয়ে বিএনপির মধ্যেই রয়েছে মতভেদ, নানা পার্থক্য৷

অডিও শুনুন 05:16

দেশে যে পরিস্থিতি চলছে, তাতে রাজপথে আন্দোলন কঠিন: আহমেদ আজম খান

বিজয় দিবসের দুপুরে জিয়াউর রহমানের মাজারে শ্রদ্ধা জানানোর পর, মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সাংবাদিকদের বলেন, ‘‘১৯৭১ সালের এই দিনে আমরা গণতন্ত্র পেয়েছিলাম৷ দেশের মানুষ ফিরে পেয়েছিল তাদের অধিকার৷ কিন্তু, সেই গণতন্ত্র ও অধিকার আজ ভূলুণ্ঠিত৷ তাই জনগণের ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের মাধ্যমে হারানো গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনা হবে৷''

তিনি আরো বলেন, ‘‘বিএনপি দীর্ঘকাল ধরে গণতন্ত্রের আন্দোলন করছে৷ কিন্তু এখন তাদের ওপর নির্যাতন চলছে৷ কিন্তু ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন এই অবস্থার পরিসমাপ্তি ঘটাবে, সত্যিকারের বিজয় অর্জন হবে৷''

ওদিকে এই আন্দোলন নিয়ে ভিন্ন কথা বলেছেন বিএনপির চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা আহমেদ আজম খান৷ তিনি বলেন, ‘‘দেশে যে পরিস্থিতি চলছে, তাতে রাজপথে আন্দোলন কঠিন৷ স্বেচ্ছাচার বা অত্যাচারী সরকারের সময়ে রাজপথে আন্দোলন করা যায় না৷ নেতা-কর্মীরা অতীতে আন্দোলন-সংগ্রাম করতে গিয়ে জেল জুলুম এবং হয়রানির শিাকার হয়েছেন৷ অনেক নেতা-কর্মী এখনও কারাগারে আছেন৷''

তাঁর কথায়, ‘‘ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব যে আন্দোলনের কথা বলেছেন, তা হলো গণতান্ত্রিক আন্দোলন৷ নির্বাচনকেও আমরা আন্দোলন হিসেবে নিয়েছি৷ বিএনপি চাইলে রাজপথে আন্দোলন করতে পারে৷ সে শক্তি তার আছে৷ কিন্তু বিএনপি শান্তিপূর্ণ গণতান্ত্রিক আন্দোলনে বিশ্বাসী৷''

আহমেদ আজম খান বলেন, ‘‘আমরা পৌর নির্বাচনে অংশ নিচ্ছি আন্দোলনের অংশ হিসবে৷ আমরা জানি বিএনপির প্রার্থীদের জিততে দেয়া হবে না৷ এরমধ্যেই তাদের হয়রানি করা হচ্ছে৷ আমরা দেশবাসী এবং বিশ্ববাসীকে দেখাতে চাই যে, এই সরকার কীভাবে দেশের মানুষের গণতান্ত্রিক অধিকার হরণ করছে৷''

প্রসঙ্গত, ২০১৪ সালের ৫ই জানুয়ারির একতরফা নির্বাচন বর্জনের পর বিএনপি বার বার সরকারবিরোধী আন্দোলন গড়ে তোলার কথা বললেও, এখনও তারা তা করতে পারেনি৷

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর না আহমেদ আজম খান – আপনি কার বক্তব্য সমর্থন করেন? জানিয়ে দিন মন্তব্যের ঘরে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

এই বিষয়ে অডিও এবং ভিডিও