1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিজ্ঞান পরিবেশ

অতিমানবীয় এক রোবট তৈরি করছে ইইউ

এতদিন ধরে বিজ্ঞানীরা মানুষের গুণাবলী সম্পন্ন রোবট তৈরিতে ব্যস্ত ছিলেন৷ তবে এবার তাঁরা জোর দিচ্ছেন ভিন্ন ধরনের এক রোবট নির্মাণে৷ মানুষের পক্ষে সম্ভব নয়, এমন পরিস্থিতিতে যারা অনায়াসে কাজ করবে৷

কেমন হবে ভবিষ্যতের রোবট? ইউরোপীয় ইউনিয়নের নতুন আন্তর্জাতিক প্রকল্প কিন্তু এটাই৷ অর্থাৎ, নতুন ধরনের রোবট তৈরি৷ আগুনের মধ্যে দিয়ে চলাফেরা করতে পারবে এরা, হয়ত পারবে জলের ওপর দিয়ে হাঁটতে৷ এমনকি কোথায় কোথায় ‘ল্যান্ডমাইন' পোঁতা রয়েছে, তাও ধরে ফেলতে পারবে এই উন্নত অতিমানবীয় রোবট৷

কোরোইবোট নামের এই রোবটগুলোর নাম রাখা হচ্ছে প্রাচীন গ্রিসে আয়োজিত বিশ্বের প্রথম অলিম্পিক চ্যাম্পিয়ন কোরোইবোস অফ এলিসের নামে৷

SpaceBot Cup 2013

মানুষের মতো কি আদৌ হাঁটতে পারবে রোবট?

এখানে বলে রাখা ভালো, কোরোইবোস আদতে একজন রাধুনি হয়েও অলিম্পিকের সেই দৌড় প্রতিযোগিতায় সকলকে পিছনে ফেলে দিয়েছিলেন৷ বলা বাহুল্য, অনেকটাই যেন অতিমানবীয় ছিল তাঁর গতি, তাঁর চলার ধরণ৷ আর তাই তো এই নামকরণ৷

সে যাই হোক, তিন বছরের এই প্রকল্পে প্রধানত জোর দেয়া হয়েছে রোবটের পায়ের গঠনের ওপর৷ অর্থাৎ, বিজ্ঞানীদের মূল লক্ষ্য মানুষের মতো চলাফেরা করবে এমন পা নির্মাণ করা৷ ৪০ জন ইউরোপীয়, ইসরায়েলি এবং জাপানি বিজ্ঞানী এই প্রকল্পে কাজ করছেন৷ এই প্রকল্পের ব্যয় ধরা হয়েছে ৪২ লাখ ইউরো৷ আর পুরো দলের নেতৃত্বে আছেন জার্মান গণিতবিদ হাইডেলব্যার্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক কাটিয়া মোমবোর৷

অধ্যাপক মোমবোর জানালেন, এখন পর্যন্ত যেসব রোবট তৈরি হয়েছে তারা নির্দেশনা অনুযায়ী কেবল সোজা বা বিপরীত দিকে হাঁটতে পারে৷ কিন্তু এবার তারা প্রযুক্তির উন্নতি ঘটিয়ে মানুষের মতো রোবট নির্মাণ করতে চান, যারা প্রয়োজনে নিজের গতি পাল্টাতেও সক্ষম হবে৷

প্রাকৃতিক দুর্যোগ যেমন ভূমিকম্প সুনামি, দাবানল এমনকি দুর্ঘটনা – এগুলোর সময় মানুষকে উদ্ধারে সাহায্য করবে এসব রোবট৷ আর সেটা সম্ভব হলে সেটা যে একরকম অসাধ্য সাধন হবে, তা বলাই বাহুল্য৷ কারণ, তাহলে এই কোরোইবোট আগুনের মধ্যে হেঁটে মানুষকে উদ্ধার করতে পারবে, যা মানুষের পক্ষে সাধারণত সম্ভব নয়৷

বার্লিনের ‘ইনস্টিটিউট ফর ফিউচার স্টাডিজ অ্যান্ড টেকনোলজি অ্যাসেসমেন্ট'-এর সিনিয়র গবেষক রবার্ট গাসনার অবশ্য বলছেন ভিন্ন কথা৷ তাঁর মতে, আগামী ২০ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে এই ধরনের রোবট তৈরি একেবারেই সম্ভব নয়৷

এপিবি/ডিজি (ডিপিএ, এপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন