অটিস্টিক কর্মীদের নিয়োগ করছে এসএপি | অন্বেষণ | DW | 04.10.2013
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

অন্বেষণ

অটিস্টিক কর্মীদের নিয়োগ করছে এসএপি

জার্মানির বিখ্যাত বহুজাতিক সংস্থা এসএপি ভারতে সফটওয়্যার টেস্টিং-এর জন্য অটিস্টিক কর্মীদের কাজে লাগাচ্ছে৷ দুর্বলতা নয়, তাদের বিশেষ ‘গুণাগুণ'-এর কারণেই এই সিদ্ধান্ত৷

ভিডিও দেখুন 02:41

অটিস্টিক মানুষদের সাফল্যের কথা শুনুন

গভীর মনোযোগ দিয়ে কাজ করতে হয়৷ যুক্তি খাটাতে পারলেই ভালো৷ তখন অনিরুদ্ধ বাকি সব কিছু ভুলে যান৷ অটিস্ট হওয়া সত্ত্বেও অনেক কষ্টে করেসপন্ডেস কোর্স শেষ করেছেন তিনি৷ এখন ভারতের ব্যাঙ্গালোর শহরে জার্মানির এসএপি কোম্পানিতে কম্পিউটার প্রোগ্রাম পরীক্ষা করেন অনিরুদ্ধ৷ সঙ্গে আছেন আরও চারজন অটিস্টিক কর্মী৷ তিনি বলেন, ‘‘আমার কাছে এর গুরুত্বই আলাদা৷ নিজের পায়ে দাঁড়াতে পেরেছি৷ নতুন অভিজ্ঞতা অর্জন করার সুযোগও পাচ্ছি৷'' ঠিক বিকাল ৫টার সময় অনিরুদ্ধ এসএপি সংস্থার নিজস্ব বাসের দিকে এগিয়ে যান৷ কর্মীদের বাসায় পৌঁছে দেয় এই বাস৷ অনিরুদ্ধ জানালেন, তাঁর মা ছেলেকে নিয়ে খুবই গর্বিত৷ তিনি নিজেও গর্ব বোধ করেন৷

Bangalore, IT-Park Whitefield, Indien, Sekretärinnen

ভারতের ব্যাঙ্গালোরে এসএপি দপ্তর

মিশেল আইজ্যাক অটিস্টিক কর্মীদের সঙ্গে কথাবার্তার দায়িত্ব নিতে চান৷ মস্তিষ্কে একটি সমস্যার কারণে অটিস্টদের পক্ষে কোনো তথ্য অনুধাবন করে তা বোঝার ক্ষমতা কম৷ মিশেল কোম্পানি ও তাদের মধ্যে সেতুবন্ধ রচনার চেষ্টা করে চলেছেন৷ তিনি বলেন, ‘‘আমি অফিসে না থাকলেও তারা এসএমএস পাঠিয়ে জানতে চায়, মিশেল তুমি কোথায় আছো? কখন অফিসে আসবে? তারা নিঃসঙ্গ বোধ করে৷ মিশেল এলেই আবার সব কিছু যেন ঠিক হয়ে যায়৷ আমার প্রতি তাদের আস্থা রয়েছে, আর আমার তাদের প্রতি৷''

ব্যাঙ্গালোর ভারতের আইটি রাজধানী হিসেবে প্রতিষ্ঠা পেয়েছে৷ এসএপি এখানে ৫,০০০-এরও বেশি কর্মী নিয়োগ করেছে৷ ক্যান্টিনে সবার জন্য দুপুরের খাবার ফ্রি৷

সফটওয়্যার সমস্যা দেখা দিলে অটিস্টিক কর্মীরা প্রায়ই একেবারে অন্য রকমের সমাধান বাতলে দেন৷ শুধু তাই নয়৷ এসএপি ল্যাবস ইন্ডিয়া-র ভাইস প্রেসিডেন্ট অবিনাশ দুবে বলেন, ‘‘খুঁটিনাটি বিষয় বোঝার আশ্চর্য ক্ষমতা রয়েছে তাদের৷ সেইসঙ্গে অসাধারণ স্মৃতিশক্তি৷ কাজের পুনরাবৃত্তি হলেও তাদের কোনো সমস্যা নেই৷ সফটওয়্যার টেস্টিং-এর ক্ষেত্রে আমাদের এই সব গুণাগুণ চাই, যা তাদের আছে৷''

এসএপি তাই আরও অটিস্টদের তথ্য প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ হিসেবে নিয়োগ করতে চায়৷ শুধু ভারতের ব্যাঙ্গালোর নয়, জার্মানিতেও৷

এক্ষেত্রে এগিয়ে এসেছে এমন একটি সংগঠন, যারা অটিস্ট-কর্মীদের বিভিন্ন সংস্থায় কাজের ক্ষেত্রে সহায়তা করে৷ তাদের প্রতিনিধি মাটিয়াস প্র্যোসল বলেন, ‘‘সব কিছু খুঁটিয়ে দেখতে হয়৷ আবেদনকারী কে, তা বুঝতে হবে৷ চাকরির প্রার্থী ও সংস্থা – দুই পক্ষকেই ভালো করে জানতে হবে৷ আসল লক্ষ্য হলো এমন সব মানুষকে বেকারত্ব থেকে মুক্ত করা, যারা কাজ করতে খুবই আগ্রহী৷''

নির্বাচিত প্রতিবেদন

ইন্টারনেট লিংক

এই বিষয়ে অডিও এবং ভিডিও