1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

অন্বেষণ

অগমেন্টেড রিয়ালিটির জাদুময়, স্বপ্নময় জগত

এককালে যা কল্পবিজ্ঞান ছিল, আজ তা বাস্তব হয়ে উঠেছে৷ এমন উদাহরণের অভাব নেই৷ যেমন অগমেন্টেড রিয়ালিটি৷ চারিপাশের বাস্তব জগতের উপর কম্পিউটারে সৃষ্ট একটা স্তর অনেক কাজে লাগতে পারে৷

অগমেন্টেড রিয়ালিটি বা এআর আসলে কম্পিউটার-নিয়ন্ত্রিত এক অলীক জগত৷ ১৯৬৮ সালে এমআইটি-র বিজ্ঞানী আইভান সাদারল্যান্ড এমন একটি ডিসপ্লে ইউনিট তৈরি করেছিলেন, যেটা মাথায় বসানো যায়৷ তখন চোখের সামনে সহজ কিছু নকশা ফুটে ওঠে৷ সেটাই ছিল প্রথম প্রচেষ্টা৷ সে যুগের বিশালাকার কম্পিউটারের পক্ষে এর চেয়ে বেশি কিছু করার ক্ষমতা ছিল না৷

আজকের স্মার্টফোনের ক্ষমতা সে তুলনায় অনেক বেশি৷ সেটি ব্যবহারকারীর অবস্থান ও দৃষ্টিভঙ্গি জানতে পারে৷ ‘উইকিটিউড' বা ‘লেয়ার'-এর মতো অ্যাপ তার ভিত্তিতে ইন্টারনেট থেকে বাড়তি তথ্য সংগ্রহ করে সেই ‘ভার্চুয়াল' তথ্য থেকে একটা ইমেজ তৈরি করে ফোনেই সেটা ফুটিয়ে তোলে৷ এআর বিশেষজ্ঞ মার্ক মাউরার বলেন, ‘‘ধরুন আমি কোথাও গেছি৷ আমার মোবাইল ফোন জানে, যে আমি সেখানে আছি এবং আগেও গেছি৷ ক্যামেরা দিয়ে ফোন আমাকে হয়ত আইফেল টাওয়ার এবং উইকিপিডিয়া থেকে সংশ্লিষ্ট তথ্য দেখিয়ে দিলো৷''

Augmented Reality

‘এনহ্যান্সড রিয়ালিটি' সাধারণ মোবাইল গাইডের তুলনায় আরও অনেক কিছু দেখায়

তবে ‘এনহ্যান্সড রিয়ালিটি' সাধারণ মোবাইল গাইডের তুলনায় আরও অনেক কিছু দেখায়৷ বাস্তব জগতের নানা জায়গার সঙ্গে আরও নানা সংশ্লিষ্ট তথ্য জুড়ে দেওয়া হচ্ছে৷ ইন্টারনেট হয়ে উঠছে ‘আউটারনেট'৷ এআর গবেষক উলরিশ বকহল্ট বলেন, ‘‘আমার বিশ্বাস, ডিজিটাল জগত আরও বেশি করে থ্রিডি তথ্যের জায়গা হয়ে উঠছে৷ সেখানে বাস্তব জগতের মতো স্পেস ডিজাইন করা যায়৷''

অর্থাৎ যে কোনো লোকেশন সম্পর্কে তথ্য খোঁজা যায়, পাওয়া যায় এবং এভাবে ফুটিয়ে তোলা যায়৷ এই প্রযুক্তির লক্ষ্য, সব ঐতিহাসিক ও সাম্প্রতিক তথ্য ঠিক জায়গায়, ঠিক সময়ে তুলে ধরা৷ এআর বিশেষজ্ঞ ক্লেয়ার বোনস্ট্রা বলেন, ‘‘অগমেন্টেড রিয়ালিটি বিটলস টুর-এর একটা ভালো উদাহরণ৷ লন্ডনের এক ডেভেলাপার সেই শহরে বিটলস ব্যান্ড সম্পর্কিত ৪২টি জায়গা নিয়ে একটি থ্রিডি প্রোগ্রাম তৈরি করেছেন, যেমন অ্যাবে রোডে৷ একই নামের বিখ্যাত অ্যালবামের মলাটে বিটলস গ্রুপকে সেই রাস্তার উপর জেব্রা ক্রসিং পেরোতে দেখা যাচ্ছে৷ আপনি অ্যাবে রোডের কাছে গিয়ে ফোন তুলে ধরলে রাস্তায় বিটলস-দের দেখতে পাবেন৷''

অগমেন্টেড রিয়ালিটি কম্পিউটার নিয়ন্ত্রিত বাস্তব অবস্থা৷ স্মার্টফোনের মাধ্যমে চারিপাশের পরিবেশের মধ্যে তা ফুটে ওঠে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

ইন্টারনেট লিংক

সংশ্লিষ্ট বিষয়