1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

অক্ষয়ের মুখে থুথু ছেটালেন অনুষ্কা

‘রব নে বানা দি জোড়ি’-র নায়িকাকে মনে আছে কী? সেই প্রথম ছবিতেই নায়িকা অনুষ্কার হিরো ছিলেন শাহরুখ খান৷ সেই অনুষ্কা এবার অক্ষয়কুমারের মুখে থুথু ছিটিয়ে দিলেন৷

অক্ষয়কুমার, অনুষ্কা, বলিউড, নায়ক নায়িকা, থুথু, শাহরুখ, ছবি, শ্যুটিং, হিরো, হিরোইন

কাটরিনা আর অক্ষয়ের জুটি বেশ জোরদার

ঘটনাটা নিশ্চয়ই তেমন বলার মত নয়৷ কারণ, নায়কের মুখে থুথু ছেটানো, তাও আবার বলিউডের টপ হিরোদের একজন, অক্ষয়কুমারের মুখে থুথু! ছি ছি! লোকে কী বলবে? কিন্তু অনুষ্কা শর্মা কাজটা করে ফেলেছেন৷ এখন আর কিছুই করার নেই৷

করার ছিলও না৷ আসলে ব্যাপারটা হচ্ছে, ঘটনা ঘটেছে ছবির দৃশ্যে৷ ছবির নাম ‘ব্যান্ড বাজা বরাত'৷ এ ছবির নায়ক অক্ষয়কুমার আর তাঁর বিপরীতে নায়িকা এই প্রায় নবাগতা তরুণী অনুষ্কা৷ তো, মুম্বইতে ছবির প্রথম দিনের শ্যুটিং-এ বেশ দুরুদুরু বক্ষে এসে হাজির নায়িকা৷ কারণ, এমন একজন নায়কের সঙ্গে তিনি কাজ করতে চলেছেন, যিনি কিনা রীতিমত একটা স্বপ্ন অনুষ্কার কাছে৷ সেই স্বপ্ন সফল করতে এসে পরিচালকের কথা শুনে নায়িকা প্রায় কেঁদে ফেলে আর কী!

কাঁদার কারণও যে ছিল না তা তো নয়! কারণ, প্রথম দৃশ্যেই ক্যামেরার সামনে অক্ষয়কুমারের মুখে থুথু ছেটাতে হবে নায়িকাকে৷ কাজটা যে কঠিন তাতে সন্দেহ নেই৷ অনুষ্কা বলেছেন, ‘আমি তো ঘাবড়ে টাবড়ে একেবারে অস্থির৷ কিছুতেই ভেবে পাচ্ছি না কী করে করব এমন একটা বিচ্ছিরি কাজ৷ করতে চাইছিলামও না৷'

কিন্তু নায়িকাকে কাজটা করতেই হবে৷ কারণ, ছবিতে সেটা প্রয়োজন৷ অবশেষে নায়ক, মানে অক্ষয় নিজেই নাকি সাহায্য করতে এগিয়ে এলেন৷ বলছেন অনুষ্কা৷ অক্ষয় নতুনদের সঙ্গে ভীষণ সহানুভূতিশীল৷ বারবার নায়ক বলছেন, ‘লজ্জা কী? আমার মুখে থুথু ফেলো, আমি কিছু মনে করব না৷'

অগত্যা! থুথু ছিটিয়ে দিলেন অনুষ্কা৷ ক্যামেরায় দৃশ্যটা নাকি জমেও গেছে দারুণ৷ পরিচালক থেকে ক্যামেরাম্যান, সকলেই খুশি৷ অনুষ্কা নিজেও যাকে বলে গদগদ৷ বলেছেন, ‘সত্যিই, অক্ষয়ের মত মানুষ হয় না৷ যেভাবে আমাকে সাহায্য করেছেন উনি, তার কোন তুলনা নেই৷'

এবার দেখার, ছবিটা শেষ হলে পর্দায় অক্ষয় অনুষ্কার রসায়ন কতটা জমে আর দর্শক সেটা কতটা আদর করে নেয়৷

প্রতিবেদন : সুপ্রিয় বন্দ্যোপাধ্যায়

সম্পাদনা: রিয়াজুল ইসলাম